এসো হাদিস পড়ি ?
এসো হাদিস পড়ি ?
হাদিস অনলাইন ?

খলীফাদেরকে চিনার উপায়

একটি আরবি শব্দ ডাবল ক্লিক করে তার অভিধান এন্ট্রি দেখায়
হাদিস - ২৪০
হযরত আওয়াম ইবনে হাওশাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন রোম দেশে বনু আসাদের জনৈক ব্যক্তি বলেন, তিনি তার গোত্রের এমন একজন থেকে বর্ণনা করেন যিনি ওমর রাযিঃ কে পেয়েছন। তিনি একদিন তার আসহাব অর্থাৎ, তালহা, যুবাইর, সালমান ও কাব রহঃ কে বললেন, আমি তোমাদেরকে এমন এক বিষয় সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করব, যদি তোমরা এ ব্যাপারে আমাকে মিথ্যা বল, তাহলে আমি, তোমরা সকলে ধ্বংস হয়ে যাবো। আমি তোমাদেরকে কসম দানের মাধ্যমে জিজ্ঞাসা করছি, আমার ব্যাপারে তোমাদের কিতাবে কি পেয়েছ, আমি খলীফা, নাকি বাদশাহ?
জবাবে তালহা এবং যুবায়ের রহঃ বলেন, নিঃসন্দেহে আপনি আমাদেরকে এমন এক বিষয় সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করছেন, যেটা আমরা জানিনা, আমরা অতটুকু জানিনা যে, আপনি একজন খলীফা নাকি বাদশাহ। জবাবে হযরত ওমর রাযিঃ বললেন, যদি এটা বলে থাকো, তাহলে তুমি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে গিয়ে কেনো বসে থাকতে। অতঃপর হযরত সালমান রহঃ বলেন, নিঃসন্দেহে আপনি প্রজাদের প্রতি ইনসাফের আচরন করেন, সকলের মাঝে বরাবর বন্টন করেন, প্রত্যেক প্রজাকে আপনি নিজের পরিবারের সদস্যের ন্যায় ভালোবসেন। মুহাম্মদ ইবনে ইয়াযিদ আরো বলেন, এবং আপনি কিতাবুল্লাহর বিধান মতে ফায়সালা করেন।
এপর্যায়ে কাব রহঃ বলেন, আমার ধারনা মতে এই মজলিসে বাদশাহ খলীফার পরিচয় সম্বন্ধে আমার চেয়ে কেউ বেশি জানেনা। তবে সালমানকে আল্লাহ তাআলা ইলম এবং হেকমত পুরোপুরি ভাবে দান করেছেন। অতঃপর কাব রহঃ বলেন, আমি স্বাক্ষ্য দিচ্ছি, নিশ্চয় আপনি খলীফা, বাদশাহ নন। একথা শুনে হযরত ওমর রাযিঃ তাকে বললেন, তুমি সেটা কী ভাবে জানতে পারলে? জবাবে হযরত কাব রাযিঃ বললেন, আপনার সম্বন্ধে আমি কিতাবুল্লাহতে পেয়েছি। আতঃপর ওমর রাযিঃ বলেন, কিতাবুল্লাহতে কি আমার নাম উল্লেখ আছে? জবাবে হযরত কাব রহঃ বললেন, না, কিতাবুল্লাহতে আপনার নাম উল্লেখ না থাকলেও আপনার বৈশিষ্ট উল্লেখ রয়েছে। সেখানে উল্লেখ রয়েছে, প্রথমে নবুওয়ত হবে অতঃপর খেলাফত এবং রহমতে রুপান্তরিত হবে। বর্ণনাকারী মুহাম্মদ ইবনে ইয়াযিদ রহঃ বলেন, খেলাফত আলা মিনহাজিন্নুযুওয়ত হবে। অতঃপর পরস্পরের বিরুদ্ধে লড়াইকারী বাদশাহ রাষ্ট্র নায়ক হবে। বর্ননাকারী হুশাইম রহঃ আরো বলেন, জালেম এবং লড়াইকারী বাদশাহ ক্ষমতা গ্রহন করবে। এসব কথাশুনে হযরত ওমর রাযিঃ বলেন, সেসব কিছু আমার মাথার উপর দিকে অতিক্রম করলেও আমার আর আফসোস থাকবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪০ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মুহাম্মদ বিন ইয়াজিদ ও বলুন থেকে তুষ সাধারণ বিন Hawshab বলেন , আমাকে বানি আসাদের শেখ বলেন 
মধ্যে জমি নিয়ে থেকে রাম একটি তার লোকদের লোক , 
ওমর বিন সাক্ষী খাত্তাব রা হতে পারে তার সঙ্গীরা জিজ্ঞাসা এবং সহ 
তালহা এবং যুবাইর সালমান এবং গোড়ালি , 
তিনি বলেন , আমি কিছু সম্পর্কে Sailkm এবং আপনার Tkzboni Vthlkuna করতে 
এবং Thlkua তোমরা ঈশ্বরের Oncdkm কি আমাকে তোমার বই খুঁজে Okhalifh আমি একটি মা রাজা 
বললেন তালহা 
এবং যুবাইর তুমি আমাদের কিছু আমরা জানি যে আমরা না সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করতে না তা জানি খলিফা এবং আমি নই একটি রাজা 
ওমর বলেন, এ 
অন্তত আমি Vtcil প্রবেশ করেন রসূল এর আল্লাহ , সা , 
তারপর সালমান বলেন যে আপনি 
প্যারিশ পরিবর্তন করুন এবং তাদের বিভক্ত Basuep এবং তাদের দু: খের বিষয় দু: খের বিষয় তার পরিবারের মানুষ বলেন, মুহাম্মদ বিন 
উপর এবং ব্যয় বই এর ঈশ্বর 
Vq আমি যা মূর্ত জন্য গোড়ালি আউট এক কাউন্সিল পরিচিত যে যেমন খলিফা 
রাজা এবং অন্যদের , কিন্তু আল্লাহ সালমান বিচার এবং নোট ভরা
তারপর তিনি বলেন কাছে সাক্ষ্য গোড়ালি যে আপনি খলিফা এবং আমি নই একটি 
রাজা 
ওমর বলেন কাছে তাকে , এবং যে কিভাবে 
বলেন , আমি তোমাদের খুঁজে বুক এর আল্লাহ ' 
উমরের বলেন , আমাকে খুঁজে মধ্যে 
আমার নাম , 
বললেন গোড়ালি হয় না কিন্তু Benatk আমি ভবিষ্যদ্বাণী এটি এবং তারপর ধারাবাহিকতা ও করুণা এর 
মুহাম্মদ বিন ইয়াযীদ 
উপর উত্তরাধিকার একটি প্ল্যাটফর্ম এর ভবিষ্যদ্বাণী এবং তারপর একটি রাজা Edaudha তিনি Hushaym বলেছেন বীজগাণিতিক রাজা Edaudha 
বলেন 
আমার মাথা যদি এতদূর যায় তবে আমি যত্ন নেব না
হাদিস - ২৪১
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি এরশাদ করেন, হযরত ওমর ইবনুল খাত্তাব রাযিঃ বলেছেন, হে কাব! তোমাকে আমি আল্লাহর নামে কসম দিয়ে জিজ্ঞাসা করছি, আমাকে তুমি খলীফা হিসেবে পেয়েছ, নাকি বাদশাহ হিসেবে? কাব রহঃ বলেন, বরং আমি তোমাকে খলীফা হিসেবে পেয়েছি। একথা শুনে হযরত ওমর রাযি তাকে কসম করতে বললে তিনি বলেন, আল্লাহর কসম!সর্বোত্তম খলীফাদের একজন এবং বরং যুগের মধ্যে উত্তম যুগের একজন ব্যক্তিত্ব।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন হাকাম ইবনে Nafie আমাদের সাফওয়ান ইবনে বলেন ' থেকে আমর 
আবু ইয়ামান এবং Shurayh বিন ওবায়েদ গোড়ালি , বলেন 
উমর ইবনুল - খাত্তাব রা হতে পারে শপথ করানো 
ঈশ্বর , হে গোড়ালি Otjdna খলিফা বা রাজা 
বললেন , আমি বললাম , কিন্তু খলিফা Fasthfah 
গোড়ালি , বলেন 
খলিফা ঈশ্বর শ্রেষ্ঠ খলিফার এবং Zmanc Kheir জামান
হাদিস - ২৪২
হযরত মুগীস আল আওযাঈ রহঃ বর্ণনা করেন, হযরত ওমর ইবনুল খাত্তাব রাযিঃ হযরত কাবকে ডেকে পাঠালে তিনি উপস্থিত হওয়ার পর তাকে বললেন, হে কাব! তুমি আমার কি বৈশিষ্ট পেয়েছ, জবাবে কাব রহঃ বলেন, একজন লৌহ মানব খলীফা, যিনি আল্লাহর বিধান প্রয়োগের ক্ষেত্রে কাউকে ভয় করবেন না। তারপর এমন একজন খলীফা হবেন যাকে তার প্রজাগন খুবই নির্মম ভাবে হত্যা করবে। এরপর পর উক্ত উম্মতের উপর বিভিন্ন বালা মসিবত আসতে থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন উসমান বিন অনেক মোহাম্মদ 
আব্বাস বিন সালেম থেকে বিন অভিবাসীদের আমাকে বলেছিলেন আমির বিন রাবিয়া আমাকে Ouzaii সাহায্যকারী বলেন 
যে 
ওমর ইবনুল - খাত্তাব আল্লাহ সন্তুষ্ট হতে পারে তার সাথে গোড়ালি পাঠানো , তিনি বলেন কাছে তাকে, গোড়ালি কিভাবে করতে বিশেষণ খুঁজে 
বলেন 
খলিফা , একটি লোহার শতকের হয় ভয় পায় না ঈশ্বরে তারপর দোষারোপ খলিফাকে তার জাতির বিরুদ্ধে অন্যায় করে হত্যা করে তারপরও এই 
হত্যাকাণ্ড এখনও চলছে
হাদিস - ২৪৩
সাঈদ ইবনে মুসায়্যাব রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন খলীফা তিনজন এবং অন্য সকল বাদশাহ, ১. আবু বকর রা. ২. উমর রা. ৩. উসমান রা. তখন তাকে বলা হল, আমরা আবু বকর রা. এবং উমর রা. কে চিনি তবে দ্বিতীয় উমর রা. কে? তখন তিনি বললেন যদি তোমরা বেঁচে থাক, তাহলে তার সাথে তোমাদের সাক্ষাৎ ঘটবে আর যদি তোমরা মৃত্যবরণ কর, তাহলে তোমাদের পরবর্তীতে তার আগমন ঘটবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মুহাম্মদ ইবনে ইসহাক ইব্রাহীম থেকে মুহাম্মদ বিন আব্দুল্লাহ Altaherty বলুন 
বিন বাধা কোমল হুজুর বা Aloslmah রীল 
সাঈদ ইবনুল থেকে - Musayyib খলিফার বলেন 
তিন Saiarham রাজাদের এর আবু বকর, ওমর ওমর 
বলা হয় যে আমরা আবু বকর ও ওমর পরিচিত ছিল , তা না হয় বয়স এর 
দ্বিতীয় 
তিনি বলেছেন যে আপনি Odricktamoh বাস যদিও মৃত , ছিল আপনার পরে
হাদিস - ২৪৪
মুহাম্মাদ ইবনে ইসহাক থেকে এরূপই বর্ণিত আছে, তবে তার সনদের মধ্যে হাবীব ইবনে হিন্দা আসলামী সাঈদ ইবনে মুসায়্যাব থেকে বর্ণনা করেন, এ কথাটি বৃদ্ধি করেছেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আবু marauding সম্পর্কে আমাদের বলুন 
ছেলে আইয়াশ , মুহাম্মদ ইবনে ইসহাক তাকে এবং সাঈদ ইবনুল থেকে হাবিব ইবনে হিন্দ আসলামী থেকে এটা বেড়ে - Musayyib
হাদিস - ২৪৫
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে নুআঈম আল মুআফরী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি কতিপয় শেখকে বলতে শুনেছি, যিনি সৎকাজের আদেশ করবেন এবং অসৎ কাজ থেকে নিষেধ করবেন তিনিই হবেন জমিনের উপর আল্লাহর খলীফা, আল্লাহর কিতাবের খলীফা এবং আল্লাহর রাসূলের খলীফা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন নাঈম আমাদের বলেছেন বাকি এর বিন ওয়ালিদ আব্দুল্লাহ বিন নাঈম বলেন Almaevri 
শোনা সরদারি 
বলে উদারতা এবং নিষেধ মন্দ কিছু উত্তরাধিকারী এর পৃথিবীতে আল্লাহ 
এবং তার উত্তরাধিকারী ও উত্তরাধিকারী এর রসূল এর আল্লাহ , সা
হাদিস - ২৪৬
হযরত আশআর ইবনে বুজাইর রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আবু মুহাম্মদ আন নাহদী রহঃ এরশাদ করেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এর পর কোনো বাদশাহ হবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন Mu'tamir বিন 
সুলাইমান বিন Alohar Bjeer বলেন 
পর আবু মোহাম্মদ Nahdi নাও হতে নবী শান্তি এর উপর হতে 
ঈশ্বর ওয়া সাল্লাম রাজা ও মই
হাদিস - ২৪৭
হযরত হাম্মাম রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন একদা আহলে কিতাবের একজন লোক এসে হযরত ওমর রাযিঃ কে বললেন, আসসালামু আলাইকুম, হে আরবদের বাদশাহ! তার কথা শুনে হযরত ওমর রাযিঃ বললেন, তোমাদের কিতাবে কি এমনই পেয়েছ? তোমরা কি এমন পাওনি যে প্রথমে নবী, অতঃপর খলীফা, এরপর আমীরুল মুমিনীন, তারপর হবে বাদশাহ। জবাবে তিনি বললেন, হ্যাঁ হ্যাঁ।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন আবু সিদ Aloamc ইব্রাহিম হাম্মাম যে 
ওমর ইবন আল - খাত্তাব রা এসে হতে পারে জন্য তাকে একটি শান্তির মানুষ , বললেন মানুষ এর বই , হে মহারাজ এর আরবদের , 
ওমর বলেন , এবং তাই হবে Ktabkm খুঁজে তোমরা না পাও নবী এবং খলিফা এবং আমির এর 
মুমিনদের , তারপর কিংস পর 
তিনি বলেন, হ্যাঁ হ্যাঁ
হাদিস - ২৪৮
বিশিষ্ট সাহাবী হযরত আবু হোরায়রা রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, খেলাফত মদীনা থেকে পরিচালিত হলেও বাদশাহী হবে শাম দেশ থেকে পরিচালিত।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
Hdtnna মুহাম্মদ ইবনে ইয়াযীদ 
থেকে Wasti সাধারণ বিন Hawshab মানুষ 
আবু Hurayrah থেকে , আল্লাহ্ তার উপর সন্তুষ্ট হতে পারে , বলেন খেলাফত মধ্যে 
শহর ও রাজা Baham
হাদিস - ২৪৯
হযরত সাঈদ ইবনে জুমহান রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর খাদেম সাফীনা রাযিঃ কে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন, দীর্ঘ ত্রিশ বৎসর পর্যন্ত আমার উম্মতের মধ্যে খলীফা থাকবে। বর্ণনাকারী মুহাম্মদ ইবনে ইয়াযীদ রহঃ বলেন, ত্রিশ বৎসর হিসাব করলে দেখা যায়, সেটা হযরত আলী রাযঃ এর খেলাফতের সর্বশেষ সময় পর্যন্ত। অতঃপর তারা হযরত সাফীনা রাযিঃ কে বললেন, এরা তো মনে করে হযরত আলী খলীফা নন। জবাবে হযরত সাফীনা রাযিঃ বলেন, একথাটি একমাত্র মারাত্নক অপরাধীগনই বলে থাকে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৪৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন Hushaym এবং মুহাম্মদ বিন সাধারণ বিন Hawshab বলেন চেয়ে বেশি করতে 
আমাদের সাঈদ বিন Gmehan বলেন 
আমি শুনেছি একটি জাহাজ মুক্ত গোলাম এর রসূল এর আল্লাহ , সা বলে 
রসূল এর আল্লাহ , শান্তি আমার ত্রিশ বছরের মধ্যে তাকেই দায়ী করা হবে আমার পরে উত্তরাধিকার , 
বলেন মুহাম্মদ বিন 
তার Vhspoa যে ঠিক রাষ্ট্র ছিল বেশি এর আলী এবং 
তারা বললেন একটি জাহাজ তারা দাবি করে যে 
উচ্চ ছিল খলিফা না 
বলেন বলে যে দাবি করা নৈতিক করা প্রথম নীল এবং এইভাবে যোগ্য
হাদিস - ২৫০
হযরত ইয়াহ ইয়া ইবনে আবু আমর আস শায়বানী রহঃ বলেন, যারা মসজিদে হারাম এবং মসজিদে বায়তুল মোকাদ্দাসের মালিক হতে পারেনি তারা খলীফাও হতে পারবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ

ইয়াহইয়া ইবনে আবি আমর আল-সিব্বানের শামুকের পুত্র থেকে আমাদের বলুন , খলিফাদের কাছ থেকে নয় যারা 
পবিত্র মসজিদ মসজিদ এবং জেরুসালেম মসজিদ নেই
হাদিস - ২৫১
হযরত সাবাহ রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, বনু উমাইয়া রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব ভার গ্রহন করার পর আর খেলাফত থাকবেনা। এভাবে মাহদী আঃ এর আগমন পর্যন্ত চলতে থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫১ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ

আবু Zarah থেকে আবু Zarah থেকে নববধূ এবং দুটি ইবনে Lahia থেকে বর্ণিত আমাদের বলুন 
, মাহদি আউট আসে না পর্যন্ত অশিক্ষিত শিশুদের গর্ভাবস্থা পরে কোন উত্তরাধিকারী
হাদিস - ২৫২
হযরত উতবা ইবনে গাযওয়ান আসসুলামী রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, খবরদার! এক সময় নবুওয়তের ধারাবাহিকতা বন্ধ হয়ে যাবে। তারপর থেকে বাদশাহদের হাতে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা চলে যাবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫২ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ

ইবনে 
গাজওয়ান শান্তির পাদদেশে হামিদ বিন হিলালের আইয়ুব থেকে আমর আবদ আল-রাজ্জাককে বলুন যে, এটি কোন ভবিষ্যদ্বাণী নয়, তবে এটি একটি রাজত্ব
হাদিস - ২৫৩
হযরত হোজাইফা ইবনুল ইয়ামান রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, নিঃসন্দেহে হযরত উসমান রাযিঃ এর পর থেকে বনু উমাইয়ার মোট বারোজন বাদশাহ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহন করবে। তাকে বলা হলো, খলীফা! জবাবে তিনি বললেন, না বরং বাদশাহ হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের Rushdin বিন সাঈদ ইবনে Lahee'ah খালেদ ইবনে আবী ইমরান বলুন 
Huzaifa ইবনুল থেকে - ইয়ামন 
রা হতে পারে , উসমান পর বলেন করবে মধ্যে হতে আল্লাহ তাকে বারোটি আনহু হতে বর্ণিত উমাইয়া রাজা 
বললেন করার 
তাঁর উত্তরাধিকারীদের 
বলেন , কিন্তু রাজারা
হাদিস - ২৫৪
উতবা ইবনে গাযওয়ান সুলামী রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি এরশাদ করেন, যখনই কোনো নবুওয়তের আবির্ভাব হয়েছে তখনই তার পরবর্তী বাদশাহর আবির্ভাব ঘটেছে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন Faddaalah ইবনে হুসেন আল - Dubby উপর বিন উটপাখি শোনা 
পিতা মওদুদ বলেন Dubby 
শুনে ইবনে Ghazwan শান্তিপূর্ণ থ্রেশহোল্ড এর মালিক এর রসূল এর আল্লাহ শান্তি বর্ষিত হোক 
তাঁর ছিল না একটি ভবিষ্যদ্বাণী কখনো বলছেন , কিন্তু তখন ছিল রাজা
হাদিস - ২৫৫
হযরত সাঈদ ইবনুল মুসাইয়াব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, খলীফা হবেন, সর্বমোট তিনজন। এছাড়া বাকিরা হবেন বাদশাহ। তাকে সেই তিনজনের নাম জানাতে বলা হলে তিনি বলেন, আবু বকর, ওমর এবং ওমর। তাকে বলা হলো, আমরা আবু বকর ও ওমরকে চিনতে পারলেও দ্বিতীয় ওমরকে তো চিনতে পারলামনা। জবাবে তিনি বলেন, যদি তোমা বেচে থাকো তাহলে অবশ্যই তার যুগ প্রাপ্ত হবে। আর যদি তোমরা জীবিত না থাকো তাহলে তোমাদের পরবর্তী সময়ে তার আগমন হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মুহাম্মদ বিন আব্দুল্লাহ বলুন 
মুহাম্মদ ইবনে ইসহাক ইব্রাহীম বিন বাধা কোমল হুজুর বা Aloslmah রীল থেকে Altaherty 
সাঈদ ইবনুল থেকে - Musayyib বলেন খলিফার তিন Saiarham রাজাদের 
এই তিনজনের বলা হয়েছিল 
বললেন আবু বকর, ওমর ওমর 
বলা হয় যে আমরা আবু বকর ও ওমর পরিচিত ছিল , তা না হয় বয়স এর দ্বিতীয় 
বলেন যে আপনি তার সম্পর্কে সচেতন হয়েছেন, এবং তিনি আপনার পরে যদি
হাদিস - ২৫৬
পূর্বের হাদীসের ন্যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আবু আল মুঘরা ইবনে 
আইয়শ থেকে মুহাম্মদ ইবনে ইসহাক থেকে আমাদের জানান এবং হাবীব বিন হেন্ড আল আসলামি থেকে ইবনে আল-মুসায়েইব
হাদিস - ২৫৭
হযরত আয়েশা সিদ্দীকা রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি একদিন রাসূলুল্লাহ সাঃ কে বললাম ইয়া রাসূলুল্লাহ! আপনার পররর্তী সময়ে রাষ্ট্র পরিচালনার এই দায়িত্ব কী ভাবে আদায় করা হবে। জবাবে তিনি বললেন, তোমার গোত্রে যতক্ষন কল্যান থাকবে ততক্ষন সেই দায়িত্ব পালনের যোগ্য তারাই হবে। অতঃপর ধ্বংস প্রাপ্ত হবে? জবাবে তিনি বললেন, তোমার গোত্র। আমি জানতে চাইলাম সেটা কেমনে? জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, মৃত্যু তাদেরকে গ্রাস করে নিবে। এবং মানুষ তাদের বিরুদ্ধে হিংসাত্নক হয়ে উঠবে।
রাসূলুল্লাহ সাঃ এর পরবর্তী খলীফা বাদশাহর তালিকা
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন গ্ল্যাডিয়েটর আমের সম্পর্কে Hushaym আমাদের চুরি বলেন 
আল্লাহ পারে আয়েশা থেকে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে 
তার আমি বললাম , হে আল্লাহর এর আল্লাহ , এই হল কিভাবে আপনি 
আপনার লোকদের কি ছিল বলেন মধ্যে তাদের সেরা 
আমি কোন আরব বলেন দ্রুততর গজ 
আপনার লোকদের বললেন 
আমি বললাম এবং কিভাবে যে 
তিনি Asthalhm 
মৃত্যু ও Enevshm মানুষ 
ট্যাগ যারা পরে মালিক রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ
হাদিস - ২৫৮
রাসূলুল্লাহ সাঃ এর খাদেম হযরত সাফীনা রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলরল্লাহ সাঃ মদীনার মসজিদ প্রতিষ্ঠাকালীন হযরত আবু বকর রাযিঃ একটি পাথর এনে রাখেন, অতঃপর হযরত ওসমান রাযিঃ এসে আরেকটি পাথর রাখেন। এই অবস্থা দেখে রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন, এরা আমার পর খেলাফতের জিম্মাদারী করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৮ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন ইবন আল - মুবারক Hacrj বিন কবিতা বিন সাঈদ Gmehan জাহাজ ক্রীতদাস মুক্ত বলেছেন এর 
রসূল এর আল্লাহ , সাঃ বলেন কি নির্মিত রসূল এর আল্লাহ , শান্তি পরে তার মসজিদ হতে মধ্যে 
শহর এর আবু বকর এসে একটি সঙ্গে পাথর এবং করা এটা তারপর ' উমর এলেন একটি সঙ্গে পাথর এবং করা এটা তারপর উসমান এসে একটি সঙ্গে পাথর এবং করা 
রসূল এর আল্লাহ শান্তি আল্লাহ তাকে আশীর্বাদ করুন এবং তাকে শান্তি প্রদান
হাদিস - ২৫৯
উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা সিদ্দীকা রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ যখন মদীনার মসজিদ স্থাপন করছিলেন তখন হযরত আবু বকর রাযিঃ একটি পাথর নিয়ে এসে রেখ দেন, এরপর হযরত ওসমান রাযিঃ আরেকটি পাথর রাখেন এঅবস্থা দেখে রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন এরা আমার পর ধারাবাহিক ভাবে খেলাফতের জিম্মাদারী পালন করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৫৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন 
বিন Hawshab সাধারণ যারা তাকে বলেন সম্পর্কে Hushaym 
আয়েশা সম্পর্কে , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তার কারণ ফাউন্ডেশন এর রসূল এর 
আল্লাহ , সা মসজিদ মধ্যে শহর এর আবু বকর এসে একটি সঙ্গে পাথর এবং করা এটা তারপর ' উমর এলেন একটি সঙ্গে পাথর এবং 
করা এটা তারপর উসমান এসে একটি সঙ্গে পাথর এবং করা 
রসূল এর আল্লাহ , সা এই রঙ্গিন 
মাত্রা এর উত্তরাধিকার
হাদিস - ২৬০
হযরত আমের শাবী রহঃ বনু মুসতালিকের এক লোক থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমার গোত্র বনু মুসতালিক আমাকে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর নিকট প্রেরন করেন, যেন একথা জিজ্ঞাসা করা হয়, রাসূলুল্লাহ সাঃ পরবর্তী আমরা সাদকা ইত্যাদি কার কাছে দিবে, অতঃপর আমি তার কাছে আসলে, আমার সাথে হযরত আলী ইবনে আবু তালেব রাযিঃ এর সাথে সাক্ষাৎ হয়। তিনি আমার আসার কারন জিজ্ঞাসা করলে আমি বললাম যে, আমার গোত্র বনু মুসতালিক আমাকে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে প্রেরন করেছে, যেন আমি তাকে জিজ্ঞাসা করি যে, তার পর আমরা কার হাতে সাদকা দিব। একথা শুনে হযরত আলী রাযিঃ বললেন, হ্যা তুমি তার কাছে জিজ্ঞাসা করে আমার কাছে এসে সে সম্বন্ধে জানাবে। অতঃপর সে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে এসে বললেন, আমাকে আমার গোত্র পাঠিয়েছে, যেন আপনাকে জিজ্ঞাসা করি যে, আপনার পর সাদকা ইত্যাদি আমরা কার হাতে দিব। জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন, আমার পরবর্তী সাদকা ইত্যাদি তোমরা আবু বকরের হাতে প্রদান করবে। রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছ থেকে জবাব শুনে তিনি হযরত আলী রাযিঃ এর কাছে এসে কথাটি জানালেন। অতঃপর আলি রাযিঃ বললেন, আবার রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসা করো, হযরত আবু বকর রাযিঃ এরপর কার হাতে সাদকা প্রদান করবে। এ ব্যাপারে রাসূলুল্লাহ সাঃ কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জবাব দিলেন, আবু বকর এর মৃত্যুর পর তোমরা সাদকা ওমরের হাতে দিবে। কথাটি এসে হযরত আলী রাযিঃ কে বললে, তিনি বলেন তুমি আবারো গিয়ে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে জানতে চাও ওমরের মারা যাওয়ার পর সাদকা কার হাতে দিবে। এ প্রস্তাব নিয়ে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে আসলে জবাবে তিনি বলেন, তোমরা ওমরের পর ওসমান ইবনে আফফান এর হাতে সাদকা ইত্যাদি প্রদান করো। ঐ লোক রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছ থেকে ফিরে এসে হযরত আলী ইবে আবু তালেব রাযিঃ এর কাছে এসে কথাটি বললে তিনি বললেন, তুমি আবারো গিয়ে জিজ্ঞাসা করো ওসমান ইবনে আফফান এর পর কার কাছে সাদকা দিবে। জবাবে বনু মুসতালিকের লোকটি বললেন, এরপর পূনরায় তার কাছে যেতে আমার লজ্জা বোধ হচ্ছে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন উপর বিন হারুন আমাদের শীর্ষ ইবনে আবু Almsawr আব্দ জন্য বলা 
জনপ্রিয় আমের 
লোক ছেলেদের Bosni জাতীয় বেনইট মুছত্বালিক্ব করার মুছত্বালিক্ব বলেন রসূল এর আল্লাহ , হতে পারে 
আল্লাহ তাকে আশীর্বাদ এবং যারা পরিশোধ করতে দিতে করার Votih Vgayna আলী ইবনে আবু তালিব পর খয়রাত , 
ঈশ্বর আশীর্বাদ তাকে Vslolna 
আমি বললাম , আমাকে পাঠিয়েছেন জাতীয়তাবাদী নির্মিত মুছত্বালিক্ব থেকে রসূল এর আল্লাহ শান্তি বর্ষিত হোক 
তাঁর কাছে জিজ্ঞাসা তাকে 
দিতে পরিশোধ থেকে থেকে দাতব্য পর 
ঝুড়ি বলেন কাছে তাকে এবং তারপর আমি মিস । 
তিনি আমাকে এসে বলল করার রসূল এর আল্লাহ , সা এবং তাকে বলেন যে তার লোকদের তাকে যারা জিজ্ঞাসা পাঠানো 
দিতে দিতে করার দাতব্য পর 
তিনি বলেন Odfoha আবু বকর ফিরে আলী তাকে বলেন 
তাকে বলেন 
পিছনে যাওয়ার জন্য আবু বকর 
তাকে জিজ্ঞাসা করে যারা তাকে তাকে জিজ্ঞাসা, তিনি বলেন ,. Adfoha ওমরের পর 
এসে তিনি শীর্ষ তাকে বলেন , 
তিনি বলেন কাছে তাকে এবং ওমর থেকে ফিরে যেতে পরে তাকে জিজ্ঞেস তারা Votah জিজ্ঞাসা দিতে
আর তিনি Adfoha উসমান বিন আফফান বললেন এবং তিনি ফিরে আলী আসেন এবং তাকে বলেন 
ফিরে যেতে করার তাঁকে এবং বললেন যাও তাকে এবং 
ওসমান তাকে জিজ্ঞেস পর তারা দিতে 
লোকটি বলল আমি Osthieddi ফিরে আসতে am রসূল এর আল্লাহ , 
শান্তি হতে তার উপর পরে
হাদিস - ২৬১
হযরত আমর ইবনে লাবীদ রাযিঃ বর্ননা করেন, একদিন রাসূলুল্লাহ সাঃ জনৈক গ্রাম্য লোক থেকে বাকিতে একটি উট ক্রয় করে। লোকটি ফিরে যাওয়ার সময় হযরত আলি ইবনে আবু তালেব রযিঃ এর সাথে তার সাক্ষাৎ হলে তিনি লোকটিকে বললেন, যদি আল্লাহ তাআলা তার রাসূল কে মৃত্যু দান করেন তাহলে তোমার পাওনা কার কাছ থেকে উসূল করবেন একথা শুনে লোকটি রাসূলুল্লাহ সাঃ কে জিজ্ঞাসা করলেন ইয়া রাসূলুল্লাহ, যদি আপনার মৃত্যু এসে যায় তাহলে আমার পাওনা কার কাছ থেকে উসূল করবো? জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, তোমার হক্ব আবু বকরের কাছ থেকে নিবে। অতঃপর লোকটি ফিরে আসলে আবারো আলী রাযিঃ এর সাথে তার দেখা হয়। তার কাছে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার পরবর্তী হযরত আবু বকর সিদ্দিক রাযিঃ থেকে আমার পাওনা উসুল করতে বলেছন, একথা বলে তিনি চলে যেতে চাইলে হযরত আলী রাযিঃ বললেন, যদি আবু বকর আবু বকর মৃত্যু বরন করে তাহলে কার কাছ থেকে উসূল করবে। অতঃপর গ্রাম্য লোকটি আবারো রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে গিয়ে বললেন, যদ আবু বকর মারা যায় তাহলে কার কাছ আমার পাওনা উসূল করব? জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, ওমরের কাছ থেকে তোমার পাওনা বুঝে নিবে। লোকটি ফিরে আসলে তার সাথে পূনরায় আলীর সাক্ষাৎ হয়। এবং আল্লাহর রাসূলের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেছেন, আবু বকর মারা গেলে ওমরই তোমার পাওনা পরিশোধ করবে। একথা শুনে হযরত আলী রাযিঃ বললেন, যদি ওমর মারা যায় তাহলে কার কাছে চাইবে? লোকটি বললেন তুমি ঠিকই বলেছ, অতঃপর সে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে গিয়ে বলল, ইয়া রাসূলুল্লাহ সাঃ যদি ওমর মৃত্যু বরন করে তাহলে আমার হক্ব কে দিবে? জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, তখন তোমার পাওনা ওসমান ইবনে আফফান থেকে বুঝে নিবে। রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কথাটি শুনে উক্ত লোকটি চলে আসার সময় আবারো হযরত আলী রাযিঃ এর সাথে সাক্ষাৎ হয় এবং রাসূলুল্লাহ সাঃ এর জবাবের কথা জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, আমি তখন আমার পাওনা ওসমান ইবনে আফফান থেকে উসূল করব। অতঃপর আলী রাযিঃ বললেন, যদি ওসমান ইবনে আফফান মারা গেলে কি করবে? একথা শুনে লোকটি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসা করলেন ইয়া রাসূলুল্লাহ যদি ওসমান ইবনে আফফান মৃত্যু বরন করে তাহলে আমার পাওনা কার কাছ থেকে উসূল করব। জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, যদি ওসমান ইবনে আফফান মত্যু বরন করে তখন তোমাকে আমার নিকট প্রেরন কারী থেকে তোমার পাওনা উসূল করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬১ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ - ২66
আমাদের বলুন আসাদ ইবনে মূসা আমাদের আব্দ আল জানান - রহমান বিন যিয়াদ 
আমাকে বলেছে আবু আব্দ আল উপর বললেন - মালিক ইবনে আবী Karima থেকে বললেন 
আমাকে আমর বিন বলেন , তবে , যে রসূল এর 
আল্লাহ , সাঃ কেনা প্রথমজাত একটি বেদুইন ধর্ম দৃশ্য Vodber A'raabi যা আলী নিহত 
ইবনে আবু তালিব , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে , 
আলী বেদুইন বলেছেন যে ঈশ্বর যারা ফিরে রসূল অধিকার গ্রেফতার 
করতে A'raabi রসূল এর আল্লাহ 
আমাকে বললেন , আমার বিরুদ্ধে , যদি মৃত্যু এসে , 
আবু বকর বলেন 
বন্ধু আপনাকে এর আপনার অধিকার Vodber A'raabi Vlekaya আলী 
বলেন তিনি কি বললেন করার আপনি রসূল এর আল্লাহ হয় 
আমার ডান আবু বকর বললেন , 
বললেন আবু বকর ডাই 
বলেন Faraga A'raabi আর 
তিনি বলেন , হে আল্লাহর এর আল্লাহ, আবু বকর ছাড়া মারা যান থেকে আমার ডান 
ওমর ইবনুল বললেন - খাত্তাব Vodber 
বেদুইনরা Vlekaya আলী 
বলেন, রসূল এর আল্লাহ বলবেন করার আপনি , 
আমার ডান বলেন ওমরের 
বলেন
ওমর মারা যায় 
তিনি ফিরে আসেন বিশ্বাস , তিনি বলেন , হে আল্লাহর এর ঈশ্বর, ওমর মাটিতে পড়ে মরে যায় থেকে আমাকে 
আপনার ডান বলেন 
ওসমান করতে 
বলেন Vodber A'raabi Vlekaya আলী 
বলেন তিনি কি বললেন করার আপনি রসূল এর আল্লাহ 
বলেন , 
ওসমান আমার ডান 
বলেন ওসমান মারা যান , 
তিনি ফিরে আসেন তিনি বললেন ওসমান 
মারা , হে আল্লাহর এর ঈশ্বর বরাবর যিনি আপনাকে পাঠিয়েছেন সেই সত্যের কাছে
হাদিস - ২৬২
বিশিষ্ট সাহাবী হযরত জাবের ইবনে আব্দুল্লাহ রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক রাত্রে জনৈক নেককার লোক আবু বকর রাযিঃ এর ন্যায় এক লোককে স্বপ্নে দেখেন, যিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর মৃত্যুর পর হযরত ওমর রাষ্ট্রীয় দায়ীত্ব গ্রহন করেন, তার মৃত্যুর পরপরই হযরত ওসমান রাযিঃ ক্ষমতাসীন হন। হযরত জাবের রাযিঃ বলেন, আমরা সেখান থেকে দাড়িয়ে গেলে বলতে থাকলাম, নেককার লোকটি হচ্ছেন হযরত রসূলুল্লাহ সাঃ আর অন্যরা হলেন, তার পরবর্তী দায়িত্বপ্রাপ্ত খোলাফায়ে কেরাম।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬২ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন পুত্র এর ইউনিস সিফিলিস এর সুখী আমাকে বলেছিল যারা শুনেছেন জাবের ইবনে আবদুল্লাহ 
সন্তুষ্ট সঙ্গে তাদের বলছেন একটি ভাল মানুষ দেখেছি রাত যেমন যদি আবু বকর ন্যাট রসূল এর আল্লাহ এবং তারপর ন্যাট ওমর আবু 
বকর তারপর ন্যাট উসমান পুরাতন 
জাবের যখন আমরা ভালো লোক বলেন এবং রসূল এর আল্লাহ , এবং যারা 
শাসকদের থেকে আদেশ তার পরে
হাদিস - ২৬৩
হযরত ওকবা ইবনে আওস আস সাদুসী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আব্দুল্লাহ ইবনে আমর রাযিঃ এরশাদ করেছন, আবু বকর পরবর্তী হযরত ওমর দায়িত্বশীল হবেন, তিনি একজন লৌহ মানব তুল্য। তারপর যিনি খলীফা হবেন, তার নাম হচ্ছে ওসমান ইবনে আফফান, তিনি হচ্ছেন যুননূর। তাকে নির্মম ভাবে হত্যা করা হবে। তাকে আল্লাহ তাআলার রহমতের বিরাট একটি অংশ দান করা হবে। হযরত মুআবিয়া রাযিঃ এবং তার পুত্র মুকাদ্দাস এলাকার অধিকারী হবেন। উপস্থিত লোকজন বললেন, আপনি কি হাসান হুসাইন রাযি এর কথা বলবেন না। এ প্রশ্ন শুনে তিনি তার কথাটি আবারো বললেন, এক পর্যায়ে তিনি মোয়াবিয়া ও তার পুত্রের কথা বলে সিফাহ, সালাম, মনসূর, জাবের, আল আমীন, গোত্রপতি সহ আরো অনেকের কথা বলেন, প্রত্যেকে একেকজন স্বতন্ত্র ব্যক্তি হবে এবং একজনের সাথে আরেকজনের কোনো মিল থাকবেনা। তাদের প্রত্যেকজন কাব ইবনে লুআই এর বংশ ধর হবেন। তাদের মধ্যে জনৈক লোক হবেন কাহতানের বাসিন্দা। তাদের কেউ কেউ মাত্র দুই দিন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকতে পারবেন। তাদের একজনকে বলা হবে, আপনি আমাদের অনুগত হয়ে যান, না হয় অবশ্যই তোমাকে হত্যা করবো। এভাবে বলার পরও আনুগত্য স্বীকার না করায় তাকে হত্যা করা হয়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন ছেলে Garret ইবনে Aoun মুহাম্মাদ ইবনে সীরীন থেকে 
বাধা বিন মার্কিন Alsdosa হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর আবু বকর বলেন , ন্যায়ত নামে ওমর 
আল - লোহা ন্যায়ত সঙ্গে ইবনে আফফান নামে ফারুক শতাব্দীর আলো এর হত্যাকাণ্ডের এর রহমত অত্যাচারিত Ottey Kiflin , 
রাজা এর পবিত্র ভূমি সিদ ও তাঁর পুত্র না বলেন মনে রাখুন ওয়েল না মনে নেই হাসিনা 
বলেন তিনি ফিরে আসেন 
তার কথা পছন্দ করতে , এমনকি সিদ দাঁড়িয়ে তাঁর ছেলে অজাচার, শান্তি বৃদ্ধি এবং মনসুর জাবের, সম্পাদক ও আমির এর 
নার্ভ হয় সব Lyra না মত তাকে হয় না 
সচেতন এর নির্মিত গোড়ালি বিন louay সহ তাদের সব মত একটি থেকে মানুষ 
Qahtan এর তাদের মাত্র দুই দিন হতে পারে এর তাদের বললেন কাছে তাকে Tbayana বা Nguetlink না 
Abayahm নিহত তাকে 
আমাদের মুহাম্মদ বিন থর ও আব্দুল রাজ্জাক বলেন, ঈশ্বরকে ধন্যবাদ একা এবং ঈশ্বর প্রার্থনা নবী মুহাম্মদ 
ও তার পরিবারকে শান্তি এবং স্বীকৃতি
হাদিস - ২৬৪
বিশিষ্ট সাহাবী হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইমর ইবনুল আস রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ইয়ারমুকের যুদ্ধের দিন একটি বইয়ে দেখতে পেলাম যে, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরপর হযরত আবু বকর সিদ্দীক রাযিঃ খলীফা নির্বাচিত হওয়ার পর মৃত্যু বরন করলে যিনি খলীফা হবেন, তার নাম হচ্ছে, ওমর আল ফারুক। তিনি লৌহ মানবের মধ্যে গন্য হবেন। তার পরবর্তী যিনি খলীফা নিযুক্ত হবেন, তার নাম হচ্ছে, ওসমান যুননূরাইন। তাকে রহমতের বিরাট একটি অংশ দেয়া হবে, কেননা তাকে নির্মম ভাবে শহীদ করা হবে। পরবর্তীতে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হবেন, সিফাহ, মানসূর, মাহদী, আল আমীন, সালাহ, আফিয়া। অতঃপর খুবই অত্যাচারীগন ক্ষমতা লাভ করবে। তাদের ছয়জন হবেন, কাব ইবনে লুআই এর বংশধর। আরেকজন হবেন, কাহতান গোত্রের। এদের প্রত্যেকে এমন নেককার হবেন, যার ন্যায় দ্বিতীয় কাউকে দেখা যাবেনা, বর্ননাকারী মুহাম্মদ ইবনে সিরীন রহঃ বলেন, আবুল জিলদ এরশাদ করেছেন, মানুষের আমল অনুযায়ী তাদের উপর বাদশাহ দেয়া হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মুহাম্মদ বিন থর বলুন 
মুয়াম্মার আইয়ুব মুহাম্মদ বিন সীরীন বাধা বিন মার্কিন এবং আব্দুর রাজ্জাক 
আব্দুল্লাহ ইবনে থেকে 
আমর ইবনুল - আস আল্লাহ সন্তুষ্ট হতে পারে সঙ্গে কিছু পাওয়া তাকে এর ইয়ারমুক আবু বকর আমাদের আক্রমণ বই 
সিদ্দীক ন্যায়ত নামে ওমর আল - লোহার ফারুক শতকের ন্যায়ত উসমান নামে Alnorin Otti Kiflin 
রহমত , কারণ তিনি ছিলেন নিহত অন্যায়ভাবে ন্যায়ত তারপর নামে একটি সিরিয়াল কিলার এবং তারপর হতে মনসুর তারপর হতে মাহদি তারপর 
হতে সচিব এবং তারপর সেন হতে হবে এবং শান্তি ধার্মিকতা এবং ভাল মানে - হচ্ছে এবং তারপর হতে প্রিন্স এর ছয় রাগ এর তাদের 
Qahtan থেকে জন্ম গোড়ালি বিন louay মানুষ সব সালেহ দেখতে না মত তাকে 
বললেন মুহাম্মদ আবু আল দুলাইম 
তাদের কাজ দ্বারা মানুষের রাজাদের উপর হতে বলেন
হাদিস - ২৬৫
পূর্বের ন্যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আব্দুল ওয়াহাব Althagafi হিশাম ইবনে বলুন 
তার দিকে আব্দুল্লাহ ইবনে আমর থেকে সীরীন বাধা ইবনে আওস
হাদিস - ২৬৬
পূর্বের ন্যায়, তবে সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, তোমরা তাদের পর আর তাদের মত কাউকে পাবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আল ওয়ালেদ বিন মুসলিম 
'আবদ-আল্লাহ ইবনে' আমর থেকে কাতাদা সম্পর্কে সাইদ সম্পর্কে আমাদের বলেছিলেন , কিন্তু তিনি বলেছিলেন: "তোমরা তাদের মত দেখতে না।"
হাদিস - ২৬৭
হযরত সাঈদ ইবনে আব্দুল আজীজ রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন, দুইজন ওমর তোমাদের জিম্মাদারী পালন করেন,, এরপর দুই ইয়াযিদ ক্ষমতাসীন হবেন, দুই ওলীদ ক্ষমতার অধিকারী হবেন, অতঃপর দুই মারওয়ান ক্ষমতার মালিক হবেন, অতঃপর দুই মুহাম্মদ ক্ষমতাসীন হবেন। হযরত সুফিয়ান ইবনুল লাইল রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি হাসান ইবনে আলী রাযিঃ কে বলতে শুনেছি, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ কে বলতে শুনেছেন, এমন এক লোক ক্ষমতার মালিক হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত কিয়ামত হবেনা, যে লোকের মলনালী হবে প্রসস্থ, তার খাদ্যনালী খুবই বড় হবে, যার কারনে সে অধিক ভক্ষন করলেও পেট ভরবেনা এবং তৃপ্ত হতে পারবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন এছাড়া আল ওয়ালিদ আমাদের সাঈদ বিন আব্দুল আজিজ বলেন , যারা তাকে বলেন 
যে রাসূল এর আল্লাহ শান্তি বর্ষিত হোক 
আল্লাহর মই ওয়া সাল্লাম বলেন, Alakm ওমর ওমর বহুবার নবজাত, নবজাত এবং মারওয়ান, মারওয়ানের 
মোহাম্মদ ও মোহাম্মদ 
মুহাম্মদ বিন Fadil সম্পর্কে শোনা জনপ্রিয় আমের সুফিয়ান বিন গোপন বিন ইসমাইল 
রাত তিনি বলেন আমি শুনেছি হাসান বেন আলীর , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট আমি শুনেছি তাদের বলতে রসূল এর আল্লাহ , সাঃ 
বলে দিন ও রাত যেতে না হওয়া পর্যন্ত এই জাতি থেকে একটি বৃহৎ মানুষ anorectum বিশাল দেখা 
Albelam আহার, না একটি পূর্ণ মি P এবং ঞ
হাদিস - ২৬৮
হযরত হেলাল ইবনে ইয়াসাফ রহঃ বর্ণনা করেন, তিনি হচ্ছেন, ঐ লোক যাকে হযরত মোয়াবিয়া রাযিঃ ওসমান রাযিঃ, পরবর্তী খলীফা সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করার জন্য রোমের আমীরের নিকট পাঠিয়েছিলেন। বর্ণনাকারী বলেন, রোমের শাসক একটি পুস্তক আনতে বললে সেটা দেখে বললেন, ওসমান ইবনে আফফান পরবর্তী খলীফা হবেন তোমাকে প্রেরনকারী মোয়াবিয়া।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মৌরি বেন আবু সিদ Aloamc বলুন 
হেলাল ইবনে Isav সম্পর্কে আত্তিয়া আমাকে পাঠিয়েছেন মেইল বলেন দ্বারা করা সিদ মালিক রোমান জিজ্ঞেস 
খলিফা উসমান পর 
তিনি ছিলেন নামক মালিক এর রোমান কোরান এবং এটা দেখেছি 
বলেন পর খলিফা 
সিদ Sahbk কে আপনাদের পাঠিয়েছে
হাদিস - ২৬৯
হযরত আবু সালেহ রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, একদা খলীফা ওসমান ইবনে আফফানের সাথে মোয়াবিয়া ইবনে আবু সুফিয়ান রাযিঃ ভ্রমন করছিলেন, চলার পথে জনৈক গায়ক কবিতা আকারে বলছিলেন, ওসমান ইবনে আফফান পরবর্তী আমীর হবেন, আলী ইবনে আবি তালেব, শক্ত সমর্থ পুরুষ সকলে তার উপর রাজী থাকবে।
বর্ণনাকারী কাব রহঃ বলেন, কাফেলার এক পার্শ্বে হযরত মোয়াবিয়া ধূসর রংয়ের একটি খচ্চরের উপর আরোহন করে চলছিলেন। ঐ সময় কাব বলেন, আলীর পরবর্তীতে আমীর হবেন, ধূসর রংয়ের বাহনের উপর আরোহী লোকটি।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৬৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন আবু সালেহ আবু সিদ Aloamc বলেন এটা ছিল 
সিদ এবং ওসমান সঙ্গে হাঁটা শুরু ... নাস্তিক বলছেন তার পরে প্রিন্স আলী ... এবং মধ্যে পিছনে জুবায়ের 
Radhi 
বলেন গোড়ালি এবং সিদ হাত হাঁটা উপর মিছিল একটি অশ্বতর Shahba গোড়ালি প্রিন্স বলেন 
তার অশ্বতর Shahba পর
হাদিস - ২৭০
হযরত হারেস ইবনে ইয়াযিদ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, আমি উতবা ইবনে রাশেদ আস সাদাফী কে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, আমি আব্দুল্লাহ ইবনে আমরের বের হওয়ার অপেক্ষায় ছিলাম তিনি বলেন, আমি এক্ষুনি আব্দুল্লাহ ইবনে আমরকে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, জাব্বারদের পর জনৈক জাব্বারের আবির্ভাব হবে, যদ্বারা আল্লাহ তাআলা উম্মতে মুহাম্মাদিয়াদেরকে শাস্তি দিবেন। এরপর মাহদী, মানসূর সালাম এবং গোত্রের জিম্মাদারগন ক্ষমতাশালী হবেন। এসময় পার হওয়ার পর যদি তোমার মৃত্যুর সামর্থ্য থাকে তাহলে যেন সে মারা যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭০ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন পুত্র এর দান ছেলে হারেস ইবন থেকে Lahee'ah বলেন 
ইয়াযীদ আমি শুনেছি ইবনে রশিদ psoriatic থ্রেশহোল্ড বলল আমি আব্দুল্লাহ বিন তীর্থযাত্রীদের শুনে আমরা বলেছিলাম করছে অপেক্ষা জন্য আবদুল্লাহ 
ইবনে আমর আসা আউট , আমরা বলেছিলাম , 
আমি শুনেছি এখন হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর বলেন করার পরে হতে 
Jabarin আল জাবের হয় বাধ্য দ্বারা ঈশ্বর জাতি মুহাম্মদ শান্তি বর্ষিত হোক এবং তারপর হস্তান্তর মাহদি আল - মনসুর তারপর 
শান্তি এবং তারপর আমির এর নার্ভ যেমন হয় Vlimit পর মৃত্যুর উপর
হাদিস - ২৭১
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নিঃসন্দেহে আল্লাহ তাআলা হযরত ইসমাঈল আঃ এর বংশধরদের মধ্যে মোট বারোজন জিম্মাদার প্রেরন করবেন। তাদের সর্বোত্তম ও আফজাল হচ্ছেন, হযরত আবু বকর রাযিঃ হযরত ওমর রাযিঃ হযরত ওসমান যুননূরাইন রাযিঃ যাকে মাজলূম ও নির্মমভাবে শহীদ করা হবে। যিনি দ্বিগুন প্রতিদান প্রাপ্ত হবেন।
আরেকজন ক্ষমতার অধিকারী হয়ে শাম দেশের শাসক থাকবেন, তার পুত্র, সিফাহ, মানসূর, সালাহ এবং আফিয়াহ।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের Damra ইবনে বলুন 
আবু Almnhal আবু জিয়াদ থেকে Hozb গোড়ালি বলেন 
যে ঈশ্বর ইসমাঈল দিলেন 
শান্তি ক্রুশবিদ্ধকরণ এর বারো মান তাদের সবচেয়ে ভাল এবং ভাল - হচ্ছে এর আবু বকর ও উমর ইবনুল - খাত্তাব এবং উসমান , 
একটি হালকা অত্যাচারিত নিহত আনা তার পুরস্কার দুইবার [এবং] রাজা এর সিরিয়া ও তাঁর পুত্র, অজাচার এবং মনসুর 
শান্তি এবং শান্ত মানে ভাল স্বাস্থ্য
হাদিস - ২৭২
ইয়াদূম আল হিময়ারী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি তাবী ইবনে আমের রহঃ কে বলতে শুনেছেন, সিফাহ নামক শাসক দীর্ঘ চল্লিশ বৎসর পর্যন্ত জীবিত থাকবেন তাওরাত নামক আসমানী কিতাবে তার নাম তাইরুস সামা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ

আল হুমায়ীর দিন থেকে Yazid ইবনে আমর Maafri থেকে হায়া পুত্র থেকে ইবনে Wahab আমাদের বলুন বিকিনি বিক্রি বর্ণনা করে চোর চুরি বছর 
আকাশের পাখি টাওয়ার নামক চল্লিশ বছর বলে
হাদিস - ২৭৩
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনুল আস রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, অতিসত্ত্বর বেশ কয়েকজন খলীফা এই উম্মতের দায়িত্বভার গ্রহন করবেন, তাদের প্রত্যেকে নেককার এবং সালেহ হবেন। তাদের হাতেই অনেক ভূখন্ড জয় হবে। প্রথম বাদশাহ এর নাম হবে জাবের। বর্ণনাকারী ইবনে নুআইম রহঃ বলেন, তার হাতে আল্লাহ তাআলা মানুষদের উপর জুলুম করবেন। দ্বিতীয় ব্যক্তি হবেন আল মুফরাহ। তিনি ছানা বিশিষ্ট পাখির মত হবেন।তৃতীয় বাদশাহ হবেন, যুল আসাব, তিনি দ্বীর্ঘ চল্লিশ বৎসর পর্যন্ত ক্ষমতাসীন থাকবে। তাদের পর পৃথিবীতে আর কোনো কল্যান বাকি থাকবেনা। বর্ননাকারী বলেন, যুল আসাব আর কি বলা হয়েছে সেটা আমি ভুলে গিয়েছে। তবে তিনি ভাল লোক ছিলেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন পুত্র এর আব্দুর রহমান বিন যিয়াদ বিন থেকে দান আশীর্বাদ আবু 
আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনুল থেকে আব্দুর রহমান ফার্নিকুলারে - আস আল্লাহ পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাদের , Sealy বলেন এই 
জাতি এর উত্তরাধিকারী Atwalun সব এর প্রতি অনুগ্রহ দান এবং তারা খোলা আপ প্রথম পুরো Alordin এর যাদের জাবির ইবনে আশীর্বাদ 
ঈশ্বর অত্যাচার এর হাত ও মানুষের দ্বিতীয় আনন্দদায়ক এটা তোলে এবং Vrokha জন্য Ktairh হয় তৃতীয় একটি নার্ভ 
থাকার জন্য চল্লিশ বছর হল না ভাল বিশ্বের পর তাদের , সে ভুলে গিয়েছিল তিনি বলেন, কি একটি স্নায়ু মধ্যে , একজন ভাল মানুষ
হাদিস - ২৭৪
হযরত মুগীছ আল আওযায়ী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বর্ননা করেন, একদিন হযরত ওমর রাযিঃ কাব রহঃ কে জিজ্ঞাসা করেন যে, তার সম্বন্ধে কাব কি জানতে পেরেছে, জবাবে কাব রহঃ বলেন, সে একজন লৌহ মানব হবে এবং আল্লাহ তাআলার বিধান সাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কোনো ভর্ৎসনাকারীর ভর্ৎসনাকে ভয় পাবেনা। অতঃপর ওমর বললেন, এরপর কি বলা হয়েছে? জবাবে হযরত কাব রহঃ বললেন, আপনার পর এমন একজন খলীফা হবেন, যাকে তার উম্মতও প্রজাগন নির্মমভাবে হত্যা করবে। অতঃপর ওমর রাযিঃ জিজ্ঞাসা করেন, এরপর কি হবে। জবাবে হযরত কাব রহঃ বলেন, হযরত ওসমান কে হত্যা করার পর বিভিন্ন ধরনের ফেৎনাও বালা মসীবতের আত্নপ্রকাশ হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আব্বাস ইবনে সালেম থেকে উসমান বিন অনেক ইবনে দীনার মুহাম্মদ বিন অভিবাসীদের বলুন 
আমির বিন রাবিয়া তাকে বলেন সম্পর্কে সাহায্যকারী Awzaa'i তাকে বলেন যে ওমর জিজ্ঞাসা হিল 
কিভাবে করতে তাকে কলিং এটি বলেন একটি 
লোহার শতাব্দীর , তিনি হয় ঈশ্বরে ভয় দায়ী করা যায় না 
বলেন , তারপর সাধরণ 
বলেন , এবং হবে আপনি পরে হতে 
খলিফা তাকে হত্যা , তার জাতি অত্যাচারী 
বলেন , এবং তারপর সাধরণ 
বলেন ইয়াম হয় পরে চাবুক
হাদিস - ২৭৫
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এবং ইয়াশু স্বাক্ষাৎ করেন, যিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর নবী হিসেবে প্রেরীত হওয়ার পূর্বের কিতাব সমূহের আলেম ছিলেন, তারা উভয়জন পৃথিবীতে সংঘটিত হওয়া বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিলেন। এক পর্যায়ে ইয়াশু রহঃ বলেন, জনৈক নবীর আত্নপজকাশ হবে এবং তার দ্বীন অন্যান্য দ্বীনের উপর প্রাধান্য বিস্তার করবে। তার উম্মতগন ও অন্য সকল উম্মতের উপর আধিক্য অর্জন করবে। তারা সৎকাজের আদেশ করবে এবং অসৎকাজ থেকে নিষেধ করবে। এসব কথা শুনে কাব বললেন, আপনি সঠিক কথাই বলেছেন, অতঃপর ইয়াশু তাকে বললেন, হে কাব! তাদের বাদশাহদের সম্বন্ধে আপনি কি কিছু জানেন? জবাবে হযরত কাব রহঃ বলেন, হ্যা, তাদের মধ্যে মোট বারোজন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহ করবেন। তাকে শহীদ করার পর আল আমীন ক্ষমতাধীন হবেন। তাকেও নির্মম ভাবে শহীদ করা হবে, অতঃপর বাদশাহদের প্রথম ব্যক্তি রাষ্ট্র পরিচালনা করার পর মৃত্যু বরন করবেন। এরপর সাহেবুল আহরাছ ক্ষমতাসীন হওয়ার পর মারা যাবেন। অতঃপর সাহেবুল আসাব ক্ষমতার মালিক হবেন। তিনিই হচ্ছেন, বাদশাহদের মধ্যে সর্বশেষ মৃত্যু বরনকারী। তারপর সাহেবুল আলামাত ক্ষমতার মালিক হওয়ার পর মারা যাবে। ইবনু মাহেক আযযাহাবিয়্যাতকে হত্যা করার পর পৃথিবীতে বিভিন্ন ধরনের ফেৎনা ফাসাদ ছড়িয়ে পড়বে। ঐ সময় থেকে যাবতীয় বালা মসীবত দেখা যাবে এবং মানুষের কাছ থেকে ভ্রাতৃত্ববোধ উঠে যাবে। অতঃপর সাহেবুল আলামতের বংশধর থেকে চারজন বাদশাহ ধারাবাহিক ভাবে দায়িত্ব পালন করবেন। তাদের দুইজন এমন হবেন যাদের জন্য কোনো বই পুস্তক পাঠ করা হবেনা, আরেকজন কয়েক মাত্র রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্টিত হওয়ার পর নিজের বিছানায় মৃত্যু বরন করবেন। আরেকজন বাদশাহর আবির্ভাব হবে জারফ নামক এলাকার দিক থেকে তার হাতেই যাবতীয় বিশৃঙ্খলার সূচনা হবে এবং তার অধীনে শাহী মুকুট চূর্ণ বিচূর্ণ করা হবে। তিনি একশত বিশদিন পর্যন্ত হিমসের শাসনভার পালন করবেন। তার প্রতি তার ভূখন্ড থেকে এক ধরনের আতংক এগিয়ে আসবে যা তাকে এখান থেকে চলে যেতে বাধ্য করবে। অতঃপর জারফ নামক এলাকাতেও বালা মসীবত প্রকাশ পাবে। যার কারনে তাদের পরস্পরের মাঝে মারাত্নক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
বললেন আমাকে যা আবু marauding ইবনে আইয়াশ বলেন করার আমাদের কাছ থেকে আমাদের sheikhs এর গোপন গোড়ালি যে তিনি পূরণ 
জশুয়া ছিল একটি আগে বই বিজ্ঞানী পাঠক উৎস এর নবী , সা Vtmakra হয় 
কম এবং তা করা হয় ঘটছে যেখানে 
যিহোশূয় বললেন নবী দেখায় তার ধর্ম শো বিচার উপর গোটা জাতিকে 
জাতির Baerov দেয় আর নিষেধ ভাইস 
বলেন গোড়ালি বিশ্বাস 
বলেন কাছে তাকে , জশুয়া কি 
আপনি তাদের রাজাদের জ্ঞান আছে , আমার গোড়ালি 
হ্যাঁ বলেন বারো রাজা আছে এর তাদের প্রথম এর তাদের একটি বন্ধু মারা 
মৃত্যু এবং তারপর ফারুক করা করা থেকে মৃত্যুর এবং তারপর সচিব নিহত নিহত , এবং মাথা এর রাজারা নিশ্চয়ই মারা যাবে , তারপর মালিক এর 
Ahras নিশ্চয়ই মারা যাবে এবং তারপর একটি মহৎ নিশ্চয়ই মারা যাবে , তারপর মালিক এর নার্ভ তেম নিশ্চয়ই মারা যাবে , তারপর 
মালিক এর চিহ্ন নিশ্চয়ই মারা যাবে পি হয়েছে কি প্রলোভন তারা হবে যদি মেরে ফেলা হবে ছেলে সোনা eradicative যখন 
এটা হাইলাইট করে চাবুক ও সমৃদ্ধির বাড়াতে এবং যখন এটি হবে চার রাজাদের হতে মানুষ এর ঘর এর মালিক এর চিহ্ন
Malakan পড়া নেই দুই বই এবং রাজা উপর ডাইস তার বিছানা Mkth সামান্য রাজা থেকে আসে 
তার হাতে বালুচর হতে কষ্ট ও তার হাতে করার পুস্পস্তবক অর্পণ হোমস বিশ এবং একশত সকালে বাসভবন বিরতি , 
তিনি তার জমি Firthal যার দ্বারা ভয় দেখালো পরার হয় চাবুক Lasfar অবস্থিত চাবুক , সহ
হাদিস - ২৭৬
হযরত ইউনুছ ইবনে মায়সারা আল জাবলানী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন। উক্ত রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা মদীনা থেকে পরিচালিত হবে, পরবর্তীতে সেটা শাম দেশের দিকে চলে যাবে, অতঃপর জাযিরা থেকে পরিচালিত হবে অতঃপর ইরাক থেকে অতঃপর বায়তুল মোকাদ্দাস থেকে, যখন রাষ্ট্র ক্ষমতা বায়তুল মোকাদ্দাস থেকে পরিচালনা হতে থাকবে মূলতঃ তখনই সেটা ধূলিস্যাৎ হয়ে যাবে। যারাই সেখান থেকে বের হবে উক্ত সমস্যা তাদেরকেও গ্রাস করে নিবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
জন্য ইউনিস বিন নরম Aljplani বলেন মারওয়ান বিন গরূৎ থেকে আমাদের ওয়ালিদ বিন মুসলিম বলুন , 
তিনি বলেন 
রাসূল এর আল্লাহ , শান্তি এই বস্তুর আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ শহর এবং তারপর Baham তারপর দ্বীপ এবং তারপর 
ইরাক , তারপর শহর , এবং ঘর এর পবিত্র যদি ঘর এর পবিত্র কেবল রিলিজ তাদের বাড়ির পিছনের দিকের উঠোন অপরাজিত আসে 
এর মানুষ ফিরে যায় থেকে তাদের
হাদিস - ২৭৭
হযরত আরতাত ইবনে মুনজির রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমার নিকট রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে সংবাদ পৌছেছে, তিনি এরশাদ করেন, নবুওয়াতী দায়িত্ব আমার পরে তিন স্থান থেকে পরিচালিত হবে, মক্কা, মদীনা এবং শাম। এই তিন স্থান থেকে উক্ত দায়িত্ব সরে আসলে, সেটা আর কিয়ামত পর্যন্ত ফিরে আসবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আব্দুল কুদ্দুস আব্দুল্লাহ ইবনে আল-মুনীর সম্পর্কে আমাদের বলেছিলেন: " 
আমি শিখেছি 
যে রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন যে, মক্কা, মদিনা ও 
শামের তিনটি জায়গায় আমাকে এই ভবিষ্যদ্বাণী দেওয়া হয়েছিল 
হাদিস - ২৭৮
হযরত কুরাব ইবনে আবদে কুলাল থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, হযরত কাব এ আহবার রহঃ আমাদেরকে সংবাদ দিয়েছেন, নিশ্চয় খলীফা মানসূর পনের খলীফার পাচ নম্বর খলীফা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন পুত্র এর দান 
ছেলে আইয়াশ ইবনে আব্বাস সম্পর্কে Lahee'ah বলেন তিনি বলেন আমি শুনেছি লাল ধুলো বিন বলছেন , আমাকে বলেছিল যে লেখক এর যন্ত্রণা এর আমার চাচার 
ইবনে আবদুল বলছেন Clal 
আমাদের বলেছেন যে গোড়ালি মনসুর পঞ্চম পনের খলিফা Inks
হাদিস - ২৭৯
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, মানসূর সংবাদ দিয়েছেন, খলীফা মানসূর বনূ হাশেম থেকে হবেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৭৯ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
আল ওয়ালীদ বিন মুসলিম ইসমাইল ইবনে কওতীর থেকে হাযার পুত্র সম্পর্কে 
মনসুরের হিল বিক্রি সম্পর্কে আমাদের বলেছিলেন 
মনসুর বানি হাশিম

খলীফাদেরকে চিনার উপায়

একটি আরবি শব্দ ডাবল ক্লিক করে তার অভিধান এন্ট্রি দেখায়
হাদিস - ২৮০
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনুল আস রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, হে ইয়ামান বাসী তোমাদের দাবি হচ্ছে, খলীফা মানসূর তোমাদের গোত্রের। না, কখনো নয় কসম সে সত্ত্বার যার হাতে আমার প্রান রয়েছে, নিঃসন্দেহে খলীফা মানসূর এর পিতা কুরাইশ বংশের হবে। যদি আমি ইচ্ছা করি তার আখেরী দাদার প্রতি তাকে নিসবত করতে তাহলে অবশ্যই আমি সেটা করতে পারব।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের জন্য হারেস ইবন ইয়াযীদ হাদরামী থেকে নবজাত পুত্র Hiệp সম্পর্কে আমাদের বলুন 
Fadl বিন আফিফ Aldala 
আব্দুল্লাহ ইবনে আমর থেকে তিনি বলেন হে ইমেন বলে য়ে 
মনসুর আপনি না এবং আমার হাত তার পিতা কোরেশী তা , এমনকি হিসেবে ইচ্ছুক একটি থেকে শতাংশ সর্বাধিক পিতামহ হয় 
একটি সম্পন্ন
হাদিস - ২৮১
হযরত ইবনে আউন রহঃ মুহাম্মদ থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, মোয়াবিয়া রাযিঃ এর পর যিনি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা পালন করবেন, তার নাম হবে সালাম।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
নাঈম বলেছেন , আমি শুনেছি ইবনে Aoun মুহাম্মদ শান্তির উল্লেখ বলেছেন হতে 
সিদ পর
হাদিস - ২৮২
হযরত ইয়াদুম আল হিময়ারী রহঃ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আমি তাবী ইবনে আমের কে বলতে শুনেছি, সিফাহ নামক বাদশাহ দীর্ঘ চল্লিস বৎসর পর্যন্ত জীবিত থাকবেন, তার নাম তাওরাত নামক আসমানী কিতাবে আসমানের পাখি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন পুত্র এর ইবনে Hiệp ইয়াযীদ ইবনে আমর Almaevri থেকে দানের জন্য গত 
Humairi শোনা বিক্রি বিন আমের বলেছেন বসবাসকারী চল্লিশ বছর নামে হত্যাকারী তোরাহ পাখি আকাশ
হাদিস - ২৮৩
হযরত আরতাত রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, গোত্রের আমীরগন তেমন কোনো যোগ্যতা সম্পন্ন না হলেও জিন ইনসান সকলের কথা শুনবে। তারা এমন এক লোকের হাতে বাইয়াত গ্রহন করবেন, যার নামে কোনো প্রকারের কলঙ্ক থাকবেনা। তবে তারা হবেন ইয়ামানী খলীফা। বর্ণনাকারী ওলীদ ইবনে মুসলিম রহঃ বললেন, কাবে আহবারের জানা মতে, তিনি হবেন ইয়ামানী, কুরাইশী এবং গোত্রের আমীর। তিনিও ইয়ামানী হবেন। তারা এবং তাদের অনুসারীগনকে বাইতুল মোকাদ্দাস থেকে বের করে দেয়া হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
থেকে আমাদের ওয়ালিদ বিন মুসলিম বলুন Oirtah প্রিন্সের ক্ষত এর নার্ভ হয় একটি এবং Adhu বলেন , 
কিন্তু তারা শুনতে একটি ভয়েস কি তিনি afterall বলেন এবং জাঁ Bayaoa তাই এবং তাই তার নাম হয় না কখনও Adhu কিন্তু 
খলিফা ইয়ামানী মধ্যে এছাড়া আল ওয়ালিদ বলেন সচেতন গোড়ালি যে ইয়ামানী কোরেশী , একটি প্রিন্স এর নার্ভ এবং 
নার্ভ মানুষ এর 
ইমেন 
এবং তাদের অনুসৃত যিরূশালেম থেকে বেরিয়ে আসা সকলের মধ্যে
হাদিস - ২৮৪
হযরত আবু হোরায়রা রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, কাহতানের এক লোক লোকজনকে তাড়িয়ে নিয়ে যাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত কিয়ামত সংঘটিত হবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আব্দুল বলুন 
সাঈদ ইবনে আবী সাঈদ Maqbari থেকে মুয়াম্মার ইবনে আবী নেকড়ে জন্য রাজ্জাক 
আবু Hurayrah থেকে 
যিনি বলেছেন দিন ও রাত যেতে না যাতে লোকেরা বাজারে একটি Qahtan থেকে মানুষ
হাদিস - ২৮৫
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আব্বাছ রাযিঃ এর বংশধর থেকে মোট তিনজন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহন করবে, মানসূর, মাহদীও সিফাহ।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন 
ওয়ালিদ বিন মুসলিম শেখ ইয়াযীদ ইবনুল - ওয়ালিদ আল - Khuzai সম্পর্কে বলেন গোড়ালি 
তিন জন্ম হয়েছে 
আব্বাস মনসুর ও আল - মাহদী ও অজাচার
হাদিস - ২৮৬
হযরত আব্দুর রহমান ইবনে কাইস ইবনে জাবের আসসাদাফী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন, পৃথিবীর বেশ কয়েকজন প্রতাপশালী ক্ষমতা পরিচালনা করার পর আমার বংশের জনৈক ন্যায়পরায়ন লোক ক্ষমতা গ্রহন করবেন। তিনি গোটা পৃথিবীতে ইনসাফে পরিপূর্ন করে দিবেন। অতঃপর কাহতানের একলোক ক্ষমতার মালিক হবেন। কসম সে সত্ত্বার যিনি আমাকে হক্ব নিয়ে প্রেরন করেছেন, দ্বিতীয়জন প্রথম খলীফা থেকে নিম্নমানের হবেন,
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
বিন ওয়ালিদ Lahee'ah আব্দ আল সম্পর্কে আমাদের বলুন - রহমান 
বিন কায়েস বিন জাবের psoriatic বলেন 
রসূল এর আল্লাহ , সা পর একটি মহৎ 
তো আমার পরিজনদের অন্তর্ভুক্ত মানুষ পূরণ পৃথিবী সঙ্গে বিচারপতি এবং তাকে যিনি আমাকে পাঠিয়েছেন পর তারপর কাহতানি কি অধিকার করুন
হাদিস - ২৮৭
হযরত আলী রাযিঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন ইমামগন কুরাইশ বংশ থেকে হবেন, তাদের উত্তম প্রজাদের খলীফাও উত্তম হবেন, এবং খারাপ প্রজাদের ইমামও খারাপ। নিঃসন্দেহে কুরাইশদের পর জাহিলিয়্যত বিহীন আর কিছুই থাকবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন সম্পর্কে Hushaym বিন Hawshab যারা তাকে বলেন সাধারণের 
বলেন আলী সম্পর্কে ইমামদের কুরাইশ 
তাদের পছন্দের উপর এবং পছন্দ কুরাইশ অজ্ঞতা পর না শুধুমাত্র Hraarham উপর Hraarham
হাদিস - ২৮৮
হযরত ওমর ইবনে আব্দুর রহমান আয যিমারী রহঃ বর্ণনা করেন যে, নিতফানের কবরে একটি লিখিত পাথর পাওয়া যায়। আব্দুর রহমান বলেন, সেখানে আমি লিখিত দেখতে পেলাম যে, ক্ষমতায় থাকবে কোমল হৃদয়ের জোতিষি। এবাদত ইত্যাদিতে থাকবে দৃঢ়তাও উদ্যমী। তার সাথে পাওয়া যাবে অলঙ্কার ও সঞ্চিত বিষয় সমূহ। বৈধ করা হবে আগত ষাড়ের মাধ্যমে। তোমার সাথে হবে আমার হিযরত উত্তম হিমইয়ারের সহযোগিতায় অতঃপর নিকৃষ্ঠত হাবশীগন ক্ষমতার মালিক হবে। তাদের পর আযাদ পারস্য বাসিরা ক্ষমতাসীন হবেন। এরপর আশ্রয় গ্রহনকারী কুরাইশগন ক্ষমতার মালিক হবেন। এরপর নানান ধরনের বিশৃঙ্খলা সমাজে ছড়িয়ে পড়বে। প্রত্যেকবার যারা ক্ষমতার মসনদে বসবেন তারা হবেন খুবই বিচক্ষন এবং পরস্পরের সাথে শত্রুতা পোষনকারী। যারা তার বিরোধীতা কারীদেরকে কোনঠাসা করে রাখবেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন আব্দুল মালিক বিন আব্দুর রহমান আবু হিশাম Alzmara তিনি বলেন , 
আমাকে বলেছিল ওমর ইবনে আবদুল রহমান 
Alzmara বলেন তিনি পাওয়া একটি পাথর সমাধি Ntvan 
আবদুল রহমান বলেন , আমি বুঝতে পেরেছি এটা করা হয় লিখিত মধ্যে এটি মুসনাদ 
Khoury এবং টাঁকা এজেন্ট nsk Zaaly এবং মে এবং Bnlk অলঙ্কার এবং Mahrzy BH ফোসকা ফিরে তুমি আপনার হিঃ Bhmir 
ভাল না এবং তারপর Habash এর স্পার্ক তারপর পারস্য এবং তারপর লিবারেল কুরাইশ পাচার এবং গরম ঝিনুক বিচ্যুতিগুলির গরম এবং প্রত্যেক 
Hotair Zhr এবং Haadi সঙ্গে সময় তাকে Mju ধমক
হাদিস - ২৮৯
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, কোন বাদশাহ সফলকাম জিজ্ঞাসা করা হলে বলা হয় হিমইয়ারুল আখইয়ার, অতঃপর যখন জিজ্ঞাসা করা হয় যে, কোন শাসক সফলতার শীর্ষে অবস্থানকারী জবাব দেয়া হয় যে নিকৃষ্ঠতম হাবশী সম্প্রদায়। আবারো যখন জানতে চাওয়া হয় যে, কে সফল বাদশাহ, জবাবে তিনি বলেন, আসাদ পারস্যদের জন্য যাকে নির্বাচন করা হয়। আবারো জিজ্ঞাসা করা হয় যে, কোন বাদশাহ সফলকাম। জবাবে বলা হয় আশ্রয় দাতা কুরাইশের জন্য যাকে নির্বাচন করা হয়েছে। আবারো যখন জানতে চাওয়া হয় যে, কোন বাদশাহ সফলতার শীর্ষে অবস্থান করছে, জবাবে বলা হলো, সামুদ্রীক হিমইয়ার বাসীদের জন্য যাকে নির্বাচন করা হবে। বর্ণনাকারী হাকাম রহঃ বলেন, হিমইয়ারের অর্থ হচ্ছে, ব্যবসায়ীগন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৮৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
বলুন উসমান বিন অনেক শাসন 
বিন Nafie বিন সাঈদ উপর বিন গাধার জন্য ওয়ালিদ বিন আমের ননী থেকে সিনান 
থেকে গোড়ালি তিনি 
বলা হয় যারা রাজা এর ধোফার গাধাগুলো বললেন ভাল না বলা হয়েছিল যাকে রাজা এর ধোফার বলেন Habash স্পার্ক বলা হয়েছিল যাকে 
রাজা এর ধোফার বলেন আল আহরার ফারিস যাকে বলা রাজা এর ধোফার বলেন কুরাইশদের পাচার বলা হয়েছিল করার সেই এর রাজা 
ধোফার গাধার বললেন সমুদ্রপথ বললেন রেফারি গাধার ব্যবসায়ীদের
হাদিস - ২৯০
হযরত নাফে রহঃ থেকে বর্ণিত, হযরত ওমর রাযিঃ এরশাদ করেন, আমার সন্তানদের একজন যার চেহারা দাগ বিশিষ্ট থাকবে, তিনি ক্ষমতাসীন হবে। তিনি গোটাজগতে ইনসাফ প্রতিষ্ঠা করবে। হযরত নাফে রহঃ বলেন, আমার ধারনা হচ্ছে, তিনি হচ্ছেন ওমর ইবনে আব্দুল আযীয রহঃ।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৯০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের উসমান ইবনে আবদুল বলুন 
জন্য মানুষের জন্য হামিদ বিন প্রিয় নাম এর ফাতিমা বিন Nafie বলেন 
ওমর ইবনে খাত্তাব , পারে 
ঈশ্বরের আশীর্বাদ তাকে হতে একটি এবং আমি তার মুখের মানুষ নিম্নলিখিত শেন Vimloha শুধু Nafie বলেন , এবং আমি মনে করি তিনি শুধুমাত্র ওমর 
ইবনে আবদুল আজিজ
হাদিস - ২৯১
হযরত কাতাদাহ রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি এরশাদ করেন, ওমর ইবনে আব্দুল আযীয রহঃ বলেন, আমি একদিন রাসূলুল্লাহ সাঃ কে স্বপ্নে দেখলাম, তার পার্শ্বে ছিলেন, আবু বকর, ওমর, ওসমান ও আলী রাযিঃ আমাকে দেখে তিনি বলেন, কাছে এসো, একথা শুনে যখন আমি তার কাছে গিয়ে দাড়ালাম তখন তিনি আমার চোখের দিকে তাকিয়ে বললেন, নিঃসন্দেহে তুমি অতিসত্ত্বর এই উম্মতের জিম্মাদারী গ্রহন করবে, এবং তাদের উপর ইনসাফ প্রতিষ্ঠা করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৯১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন আত্মা এর বিন পূজা বলল কাতাদা জন্য ইবনে আবী সর্বাত্মক আরবীয় একাত্মতা , বলেন 
ওমর ইবনে আবদুল আজিজ বলেন , আমি দেখেছি রসূল এর আল্লাহ , সা ঘুমাতে সঙ্গে তাকে আবু 
বকর, ওমর ও উসমান আলী আল্লাহ পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাদের বললেন করার আমাকে , আদানা Phinot যতক্ষণ না আপনি আছে তার হাত পর্যন্ত উঁচুতে 
তার দৃষ্টিশক্তি , 
তিনি বলেন যখন আপনি অনুসরণ করা হবে এই জাতি তাদের সমন্বয় করবে
হাদিস - ২৯২
হযরত ওলীদ ইবনে হিশাম রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একজন ইহুদীর সাথে আমার স্বাক্ষাৎ হলে তিনি আমাকে বললেন, হযরত ওমর ইবনে আব্দুল আযীয রহঃ অতি সত্ত্বর এই জিম্মাদারী গ্রহন করবে এবং ইনসাফ প্রতিষ্ঠা করবেন। পরবর্তীতে আবারো তার সাথে স্বাক্ষাৎ হলে তিনি আমাকে বলেন, নিঃসন্দেহে তোমার সাহেব দায়িত্ব প্রাপ্ত হয়েছেন, আপনি তাকে বলেন, যেন সে নিজেকে সংস্কার করতে পারে। আমি তার সাথে স্বাক্ষাৎ করে ঘটনাটি বললাম, আমার কথা শুনে তিনি বললেন, তোমার ধ্বংস হোক, আমি সে ব্যাপারে কিছুই জানিনা। তবে আমি এতটুকু জানি যে, একটি সময় আসবে আমি তখন পানি পান করাবো। যদি ঘোষনা দেয়া হয় যে, আমার সুস্থতা আমার কানের লতি স্পর্শ করার মাঝে নিহিত হয়েছে তাহলে আমি সেটা গ্রহন করব। অথবা যদি আমার সামনে কোনো সুগন্ধি পেশ করা হয় এবং আমি সেটকে গ্রহন করার জন্য আমার নাকের দিকে নিয়ে যাই তাহলে আমি সেটা করব।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৯২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন Damra বিন রাবিয়া 
আলী ইবনে আবু প্রচারণা ওয়ালিদ বিন হিশাম বলেন 
ইহুদি আমার সাথে দেখা Voalmna যে ওমর ইবনে আবদুল 
আজিজ হবে করা অনুসৃত দ্বারা এই এবং এটি সামঞ্জস্য হবে এবং তারপর আমাকে পূরণ পর তিনি বলেন করার আমাকে আপনার প্রতিবেশী জলসেচন পারে হয় একবার 
Fletdark নিজে পাস , আমি তাকে স্মরণ করিয়ে তিনি বলেন করার আমাকে , খুনী এর ঈশ্বর , আমি কি জানি আমি শিখেছি সময় যে 
Sagit , এমনকি যেখানে এটা ছিল গতকাল যে আমার পুনরুদ্ধার কানের লতি আমার কানে আমি কি , অথবা আমার নাক থেকে Otti সঙ্গে মলম Vorfh 
Vohmh কি আমি
হাদিস - ২৯৩
হযরত ওমর রাযিঃ এর মোয়াজ্জিন উকাইলী রহঃ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদিন হযরত ওমর রাযিঃ আমাকে খ্রীষ্টান ধর্ম যাজকের কাছে পাঠালেন, যেন তাকে ডেকে আনা হয়। তিনি উপস্থিত হলে হযরত ওমর তাকে বললেন, তোমার জন্য শুভ কামনা রইল, তোমদের কাছে কি আমার কোনো বৈশিষ্ট জানা আছে। জবাবে সে বলল, হ্যা হে আমীরুল মুমিনিন! তার কথা শুনে ওমর রাযিঃ বললেন, সেটা কেমন, জবাবে বলা হলো লোহার শিংয়ের ন্যায় ওমর রাযিঃ জিজ্ঞাসা করলেন, সেটা আবার কি? বিশপ বললেন, শক্তিশালী একজন পুরুষ। হযরত ওমর রাযিঃ আলহামদুলিল্লাহ বলে বললেন তারপর কি রয়েছে। জবাবে বিশপ বললেন, আপনার পর এমন একজন খলীফা হবেন, তার মধ্যে তেমন কোনো রনশক্তি না থাকলেও তিনি তার নিকটাত্নীদের দ্বারা প্রভাবিত হবেন, একথা শুনে হযরত ওমর রাযিঃ বললেন, আল্লাহ তাআলা যেন, ওসমানের উপর দয়া করেন!
আল্লাহ তাআলা যেন, ওসমানের উপর দয়া করেন!!
এরপর ওমর জানতে চান, তারপর কি হবে? জবাবে বিশপ বললেন, পাথরের মধ্যে আঘাত করা হবে। হযরত ওমর রাযিঃ তার ব্যাখ্যা জিজ্ঞাসা করলে তিনি জবাব দেন, উন্মোক্ত তলোয়ার এবং ব্যাপক হারে গন হত্যা চলতে থাকবে। একথাটি হযরত ওমরের কাছে খুবই বেদনাদায়ক মনে হওয়ায় তিনি বললেন, গোটা দিন তোমার ধ্বংস হোক। অতঃপর উক্ত ধর্ম যাজক বললেন, হে আমীরুল মুমিনীন! এরপর কিন্তু একটি দল গঠিত হবে। বর্ণনাকারী ওকাইলী বলেন, এরপর ওমর রাযি আমাকে বললেন, হে ওকাইলী! দাড়িয়ে আযান দাও। তারপর তিনি খ্রীষ্টীয় ধর্ম যাজকের কাছে আর কিছু জানতে চেয়েছেন কিনা আমি জানিনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৯৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন মুহাম্মদ বিন Munib সংক্রামক গোপন বেন ইয়াহিয়া আমাদের বলেছেন 
Oqaili মোয়েজ্জিন ওমর ইবনুল থেকে Bastam বিন মুসলিম - খাত্তাব বললেন 
Bosni ওমর আল্লাহ পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে 
বিশপের বিশপ তাঁকে Vdaute , ওমর বলেন কাছে তাকে এবং Otjdon Natna ঘষা আপনি আছে 
বলেছিলাম হ্যাঁ , হে 
কমান্ডার এর আমিরুল , 
বলেন কিভাবে করতে আমাকে খুঁজে 
বলেন Nagdk শতাব্দী লোহা 
বলেন , এবং একটি শতাব্দী 
লোহা শক্তিশালী খুব বলেন 
ওমর হামাদ বলেন , ঈশ্বর 
বলেন , দুর্ভোগ তারপর সাধরণ 
বলেন , এবং তারপর একটি মানুষ 
পর তুমি ভুল কিছুই সঙ্গে যার প্রভাব পড়বে আত্মীয় 
উমরের বলেন গর্ভ এর ঈশ্বর উসমান ঈশ্বরের মহিমা কীর্তন করা উসমান 
তারপর ঘষা বলেন সাধরণ বলেন , এবং তারপর একটি মধ্যে ফাটল পাথর বলেন , এবং মধ্যে ফাটল পাথর 
বলেন একটি খোলা তলোয়ারের এবং রক্ত 
Msvuk 
বলেন বিবর্ধিত উপর ওমর বলেন , দুর্ভোগ থেকে আপনি বাকি এর দিন , 
বিশপ হে কমান্ডার মো এর 
বিশ্বস্ত , ণ এটা তারপর একটি সম্প্রদায় বলেন
তিনি আমাকে বললেন, 'ওমর কুম, তাহলে আমি জানিনা সে কি 
কিছু পরে তাকে জিজ্ঞেস করেছিল কি না
হাদিস - ২৯৪
হযরত কাব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, আল্লাহ তাআলা নবী, খলীফা এবং বাদশাহ একমাত্র গ্রাম এবং শহর বাসীদের থেকে প্রেরন করেছেন, অবশ্যই তারা উক্ত দায়িত্ব গ্রাম ও শহর বাসীদের মধ্য থেকে হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী নয়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ২৯৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের হাকাম ইবনে Nafie বলুন , সাফওয়ান ইবনে থেকে ' আমর Shurayh ছেলে 
ওবায়েদ গোড়ালি , বলেন 
ঈশ্বর পাঠাননি ভবিষ্যদ্বাণী দেখা যায় না একটি উত্তরাধিকার শুধুমাত্র অন্তর্গত নয় মানুষ এর 
গ্রাম ও সভ্যতার Aatamon এটা করতে হয় মানুষ এর কলাম এবং বেদুইনরা 
উল্লেখ করা হয় 
রাজা এর উমাইয়া ও ওমর বি পর Ocommim নামে ঈশ্বর তাঁর সাথে সন্তুষ্ট