এসো হাদিস পড়ি ?
এসো হাদিস পড়ি ?
হাদিস অনলাইন ?

ফিৎনার স্থান প্রসঙ্গে

একটি আরবি শব্দ ডাবল ক্লিক করে তার অভিধান এন্ট্রি দেখায়
হাদিস - ৬৯৮
আম্মার ইবনে ইয়সির রাযিঃ থেকে বর্নিত তিনি বলেন, যখন তুমি শামবাসীকে হযরত মোয়াবিয়া ইবনে আবু সুফিয়ান রাযিঃ এর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হতে দেখবে তখন তোমরা মক্কার দিকে ধাবিত হতে থাকো।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৬৯৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন ওয়ালিদ এবং Rushdin 
ইবনে Hiệp আমাকে বলেছে আবু সেরহ ইবনে Zarir সম্পর্কে বলেন 
আম্মার বিন ইয়াসির আল্লাহ পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে 
যদি আপনি দেখেন শাম ইবনে আবী সুফিয়ান তার সাক্ষাৎ এবং হাতি মধ্যে মক্কা
হাদিস - ৬৯৯
খলীফা হযরত আলী রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, যখন সুফিয়ানীরা বিজয়ী হতে থাকবে, তখন উক্ত বালা মুসিবত থেকে অবরুদ্ধ কালীন ধৈর্যশীলরা ছাড়া অন্য কেউ মুক্তি পাবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৬৯৯ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ - 699
আমাদের বলুন 
ওয়ালিদ ও আবু রোমান থেকে Rushdin ইবনে Hiệp আবু যেমন 
আলী আল্লাহ পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে 
যদি কিছু Sufiani না হাজির এই চাবুক থেকে রেহাই , কিন্তু অবরোধের ধৈর্য
হাদিস - ৭০০
সাঈদ ইবনে মুহাজির আলওস্সাবী কে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, যখন মাগরিবের পক্ষ থেকে ফিৎনা আসতে থাকবে তখন তোমরা ইয়ামানের দিকে যাত্রা করতে থাকো, কেননা উক্ত ফিতনা থেকে তোমাদেরকে পৃথিবীর অন্য কোনো দেশ রক্ষা করতে পারবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের বলুন 
রুস্তম থেকে মুহাম্মদ বিন Saqr বিন গাধার বলেন 
আমি শুনেছি সাঈদ বিন অভিবাসী Wosabi বলেছেন যদি 
লোভ এর ইমেন আপনার পায়ের সামনে মরক্কো Vhdoa , এটা তাদের অন্যান্য জমি Ihrzkm নেই
হাদিস - ৭০১
আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ননা করেন, তিনি বলেন, যখন পশ্চিম দিক থেকে ফিৎনা প্রকাশ পাওয়ার পাশাপাশি পূর্বদিক থেকেও ফিৎনা আসতে থাকে তখন তোমরা শাম দেশে গিয়ে আত্নরক্ষা কর।
ঐ মূহুর্তে জমিনের নিচের অংশ উপরিভাগ থেকে অনেক উত্তম।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ - 701
ইয়াহইয়া ইবনে সাঈদ আল - আত্তারের আমাদের আব্দুল্লাহ বিন সাঈদ ময়ূর থেকে তীর্থযাত্রীদের বলেন 
ইবনে থেকে 
আব্বাস , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে থেকে তাকে নবী , শান্তি হতে উপরে তাকে যদি সে মরক্কো এর কবজ মিলিত হয় এবং অন্যান্য 
থেকে পূর্ব Valtqgua শাম পেট Fbtun পৃথিবী যে প্রতিদিন হয় তাকে আবার বেশী ভালো
হাদিস - ৭০২
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, জমিনের পেট তখন পিঠের চেয়ে অনেক উত্তম হবে উপরের অংশ থেকে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ

আবু হাযান থেকে সাফওয়ানকে 
হিলের বাকি অংশ সম্পর্কে বলুন , সেদিন মাটির পাত্রটি পেছনের চেয়ে ভাল।
হাদিস - ৭০৩
সাহাবী হযরতয আবু হুরায়রা রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ হতে বর্ননা করেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন যখন পূর্ব-পশ্চিম উভয় দিক থেকে ফিৎনা আসতে থাকবে তখন সে ফিৎনা থেকে কেউ বাঁচতে পারবেনা, তবে ঐ লোকের বাঁচার আশা করা যায়, যে খুবই গোপনীয়তার সাথে জীবন যাপন করে। জনসমক্ষে আসলেও কেউ চিনতে পারেনা, কোথাও বসার পর উঠে চলে গেলে তাকে খোঁজা হয়না।
আর ঐ ব্যক্তির মুক্তির আশা করা যায়, যে, পানিতে ডুবন্ত মানুষের ন্যায় শেষ আর্তনাদ হিসেবে ক্ষিনস্বরে সাহায্যের আকুতি জানাতে থাকে।
এ দুই দল ব্যতীত অন্য কেউ বাঁচতে পারবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের Damra ইয়াহিয়া ইবনে আবী আমর বলুন 
আবু Hurayrah থেকে , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে 
নবী , শান্তি হতে উপরে তাকে পালাতে পারবে না বলেন , কিন্তু যে গোপন যদি এটা জানা যায়নি প্রদর্শিত , যদিও না বসে 
অনুপস্থিত অথবা একটি মানুষ Kdaa নামক ডুবে সমুদ্র
হাদিস - ৭০৪
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, যখন চতুর্দিক থেকে ফিৎনা ধেঁয়ে আসবে তখন তুমি শীতকালীন পিঁপড়ার ন্যায় নিজের আত্নরক্ষার জন্য একটি স্থান খুঁজতে থাক।
তবে সেটা হতে হবে অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে। বিন্দু মাত্রও প্রকাশ পেতে পারবেনা। এধরনের ফিৎনা থেকে আত্নরক্ষার সর্বোত্তম স্থান হচ্ছে, মদীনা হেজাজএবং তার পার্শ্বের অন্যান্য এলাকা খুবই উত্তম অন্য এলাকা থেকে
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের Ortoh জন্য আবদুল্লাহ ইবনে মারওয়ান বলুন 
বিক্রয় সম্পর্কে 
থেকে গোড়ালি বলেন তাই নিজেকে জিজ্ঞাসা যদি বিষয় একই ভ্যাকুয়াম চাল পিপীলিকা 
শীতকালে প্রয়োজন এবং না সৌন্দর্যমণ্ডিত করে তাই করা হয় জানা যায়নি জন্য এই স্কোর এবং অন্যান্য শহর এবং চারপাশের 
হিজাজ এবং অন্যদের চেয়ে নিরাপদ উপকূল
হাদিস - ৭০৫
নজীব ইবনে সারী রহঃ বলেন, একদিন সায়্যিদুনা হযরত ঈসা আঃ খলীল পাহাড়ের নিকটে গিয়ে সেখানের বাসিন্দাদের জন্য তিন ধরনের দোয়া করতে গিয়ে বলেন, হে আল্লাহ! এ এলাকায় ভীতসন্ত্রস্থ হয়ে কেউ আসলে যেন এখানে নিরাপদ থাকে এবং উক্ত এলাকার বাসিন্দাদের উপর যেন কখনো চতুস্পদ জন্তকে চাপিয়ে দেয়া না হয়। আর পৃথিবীতে দূর্ভিক্ষ দেখা দিলেও যেন এ এলাকায় দূর্ভিক্ষ দেখা না যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের মুহাম্মদ বিন গাধার বলুন 
জন্য অমিতব্যয়ী পুত্র এর 
পুত্র যিশুকে গোপন এর মেরি , বলেন মাউন্ট হেবরন শান্তি তার পরিবারের তিন কল নামক ওয়া সাল্লাম , বললেন 
হে ভগবান , ভয় নিরাপত্তা যা সাত জনের চালা নেই Attah এবং যদি জমি হয় শুষ্ক Ajdb না
হাদিস - ৭০৬
ওজীন ইবনে আতা রহঃ থেকে বর্নিত, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন, খলীল পাহাড়টি খুবই সম্মানিত পাহাড়। বনী ইসরাঈলের মধ্যে কোনো এক সময় মারাত্নক কোনো ফিৎনার আশংকা দেখা দিলে আল্লাহ তা’আলা তৎকালীন নবীদের প্রতি ওহি পাঠালেন যে, তোমরা তোমাদের দ্বীনের হেফাজত করতে হলে খলীল পাহাড়ের নিকট গিয়ে আত্নরক্ষা করতে থাকো।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের Alodan ইবনে আতা জন্য মুহাম্মদ বিন গাধার বলুন 
যে রসূল এর আল্লাহ শান্তি বর্ষিত হোক 
তাঁর , বলেন মাউন্ট হেবরন , একটি পবিত্র পর্বত এবং যে 
রাষ্ট্রদ্রোহ কি হাজির শিশুদের এর ইস্রায়েল , সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের তাদের নবী কাছে প্রকাশ 
মাউন্ট হিব্রোণে তাদের ধর্ম পালিয়ে যেতে
হাদিস - ৭০৭
উমাইর ইবনে হানী আনাসী রহঃ থেকে বর্নিত, আমার কাছে সংবাদ এসেছে, আমার বন্ধুদের কেও খলীল পাহাড়ের মধ্যে নিজের জন্য বাসস্থান বানিয়ে নেয় এবং সকলের ঈর্শার পাত্রে পরিনত হয়। কেন তার এ সিদ্ধান্ত জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, কারন হচ্ছে, অতি সত্ত্বর এখানে মিশর বাসীরা আগমন করবে,হয়তো তাদের দেশের নীল নদীর প্রবাহ বন্ধ হয়ে যাবে, না হয় নীল নদীর পানি এতবেশি উচ্চতায় প্রবাহিত হবে যার কারনে মিশর বাসীরা ডুবে যাবে, এমন কি উক্ত পানি খলীল পাহাড়ের পর্বতের চূড়াকেও স্পর্শ করার আসংকা রয়েছে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
ছেলে এর গাধার এবং আমাকে বলেছিলেন মুহাম্মদ বিন ইয়াযীদ 
San'aani 
আমির ইবনে হানী আল - ANSI , তিনি আমাকে অবহিত যে বলেন আমার ভাই লোক মাউন্ট নেন 
হেবরন ঘর এবং Ogbth না যে, তিনি এটা বলেন Sinzlh বলা হয় মানুষ এর মিসর হয় পারেন লক আপ দেওয়া হচ্ছে থেকে পারেন প্রসারিত 
মাউন্ট Eetmashawwa হিব্রোণে নিমজ্জিত , দড়াদড়ি সহ
হাদিস - ৭০৮
আব্দুল্লাহ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, উল্লেখিত ফিৎনাকালীন কোনো অবস্থাতেই কেউ মুক্তি পাবেনা তবে যারা অবরোধকালীন ধৈর্য ধারন করবে তাদের মুক্তির কিছুটা আশা করা যেতে পারে। সুফিয়ানীদের জন্য নির্ধারিত আশ্রয়স্থল, যেটা মূলতঃ আল্লাহ তাআলার রহমতের মাধ্যমে নির্ধারিত। অনারবের তিনটি শহর, প্রথমতঃ প্রশস্ত উপত্যকার পার্শ্বে অবস্থিত শহর, যার নাম হচ্ছে, এন্তাকিয়া।
দ্বিতীয় শহর হচ্ছে, যেটা ফুরস হিসেবে প্রসিদ্ধ।
তৃতীয় আরেকটি শহর যেটা। সামিসাত নামে পরিচিত। তাছাড়া অন্য আরেকটি এলাকা হচ্ছে, এমন এক পাহড়, যা রোম বাসীদের আশ্রয়স্থল হিসেবে সমৃদ্ধ, যার নাম হচ্ছে, আল-মুতাক।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আবু ওমর ইবনে বলুন 
তার পিতা হারিস থেকে Hiệp আব্দ ওয়াহাব বিন হুসাইন মুহাম্মদ ইবনে সাবেত 
আব্দুল্লাহ 
বলেন , Peleta শুধুমাত্র বেঁচে থাকার নয় ধৈর্য এর অবরোধ এবং Sufiani দুর্গ , ঈশ্বর ইচ্ছুক , 
এর তিনটি শহর অ - আরবদের হাত stomata শহর আন্তিয়খিয়ায় ডেকে শহর হয় বলেন করার আছে বলা হয় সাইরাস এবং শহরটিকে স্মিৎস্যাট এবং 
রোমান মাউন্টেনের দুর্গকে ত্যাগ করা হয়েছে
হাদিস - ৭০৯
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, হিমস হচ্ছে, ঐসব সৈন্যদের অন্তর্ভুক্ত, যাদের শহীদগন সত্তর জনের জন্য সুপারিশ করবেন, দিমাশক বাসীরা হচ্ছেন, যাদেরকে জান্নাতে সবুজ কাপড় দ্বারা পরিচিত করা যাবে। অন্য দিকে জর্দানের সৈন্যরা কিয়ামতের দিন আল্লাহর আরশের নিচে ছায়া পাবেন।
ফিলিস্তিনের অধিবাসীরা হচ্ছেন, যাদের দিকে আল্লাহ তা’আলা দৈনিক দু’বার দৃষ্টি দিয়ে থাকেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭০৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আবদুল কুদ্দুস বলুন 
সাঈদ বিন আব্দুল আজিজ উরওয়া ইবনে রোম 
সম্পর্কে গোড়ালি , বলেন 
থেকে হোমস সৈন্য যারা মধ্যস্থতা 
Shahydhm সত্তর 
এবং মানুষ এর দামাস্কাস কে এবং জান্নাতের মধ্যে সবুজের পরিহিত জানেন মানুষ এর জর্ডান , এর সৈন্য 
যারা অধীনে আছে আরশ ডে এর কিয়ামত ও মানুষ এর প্যালেস্টাইন যারা আছে ঈশ্বর দর্শন থেকে প্রতিদিন তাদের 
দ্বিগুণ
হাদিস - ৭১০
আবু যর গিফারী রাযিঃ হতে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ননা করেন, তিনি এরশাদ করেন, পৃথিবীতে সর্বপ্রথম মিশর এবং ইরাক ধ্বংস হয়ে যাবে।
হে আবু যর! যখন তুমি দেখতে পাবে, বাতি-ঘরের উচ্চতা সিলা পর্যন্ত পৌছে গিয়েছে তাহলে শাম দেশকে আকড়িয়ে ধরবে। আমি বললাম, যদি তারা আমাকে যেখান থেকে বের করেও দেয় তাহলেও কি আমি সেখানে যাবো?
জবাবে রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন, তোমাকে তারা যেখানে তাড়িয়ে নিয়ে যায় সেখানে চলে যেতে সংকোচবোধ করোনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের আবদুল কুদ্দুস বিন Afeer কাতাদা জন্য Ma'dan সম্পর্কে আমাদের বলুন 
আবু যার রা সন্তুষ্টি থেকে এর 
ঈশ্বর সঙ্গে থেকে তাকে নবী , শান্তি হতে উপরে তাকে 
প্রথম সর্বনাশ মধ্যে মিশর ও ইরাক । 
তাহলে নির্মাণ পৌঁছে 
Asla 
আপনি , হে আবু যর Baham 
বলেন , যদিও তারা আমাকে বের করে এর তাদের 
তাদের যেখানে বলা মিলিত ভাবে গড়ে তোলা Saqok
হাদিস - ৭১১
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, হিমস এলাকার শহীদগন সত্তর হাজার মানুষের জন্য সুপারিশ করবেন, অন্যদিকে দিমাশক বাসীদেরকে আল্লাহ তাআলা কিয়ামতের দিন সবুজ কাপড় পরিধান করাবেন। জর্ডানের অধিবাসীদেরকে কিয়ামতের দিন আল্লাহ তা’আলা তার আরশের নিচে ছায়া দান করবেন।
ফিলিস্তিন বাসীদের প্রতি আল্লাহ তা’আলা প্রত্যেকদিন তিনবার করে দৃষ্টি দেন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমাদের হাকাম ইবনে Nafie সাফওয়ান বলুন 
থেকে গোড়ালি শহীদ মানুষ এর হোমস বলেন মধ্যস্থতা 
সত্তর হাজার লোক এর দামাস্কাস এবং সবুজ পোষাক এর তাদের লেপ ঈশ্বর ডে এর কিয়ামত ও মানুষ এর জর্ডান , ঈশ্বর হবে আলোছায়া 
অধীনে সিংহাসন এর ঈশ্বর ও মানুষ এর প্যালেস্টাইন হয় প্রতিদিন তিনবার দেখা
হাদিস - ৭১২
কাসীর ইবনে মুররা থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশদ করেছেন,শাম দেশে ইসলামের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। আল্লাহ তা’আলা তার বান্দাদের থেকে যারা উৎকৃষ্ট মানের তাদেরকে সেদিকে ধাবিত করবেন। একমাত্র বঞ্চিত লোকদেরকেই সেখান থেকে বিতাড়িত করবেন।
শামদেশের প্রতি আল্লাহ তা’আলার বিশেষ দৃষ্টি নিবন্ধিত থাকে। যদ্বারা সেখানে ছায়া-বৃষ্টি সবকিছু যথাযথ ভাবে পাওয়া যায়। তারা সম্পদশালী না হলেও কখনো রুটি এবং পানির জন্য কষ্ট পাবেনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১২ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ - 712
হাকাম ইবনে Nafie বিন সাঈদ সিনান 
অনেক বিন জন্য একবার বললেন রসূল এর আল্লাহ , শান্তি বর্ষিত হোক 
তাঁর তাদের নিজস্ব বাড়িতে এর ইসলাম Baham ক্রীতদাসদের গণ্যমান্য ঈশ্বর বিক্রী হয় এবং থাকে একমাত্র 
বঞ্চিত তাদের চায় না , কিন্তু দ্বারা চক্রান্ত চোখ এর থেকে ঈশ্বর অন্য অনন্তকাল প্রথম দিন 
ছায়ায় ও বৃষ্টির মধ্যে অনন্তকালের একটি দিন, তাদের মধ্যে সবচেয়ে দু: খ অর্থ, রুটি এবং জল ছিল
হাদিস - ৭১৩
শুরাইহ ইবনে উবাইদ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, একদিন হযরত মোয়াবিয়া রাযিঃ কা’বকে হিমস এবং দিমাশক সম্বন্ধে জিঞ্জাসা করলে তিনি জবাব দিলেন, দিমাশক হচ্ছে, রোম দেশের মুসলমানদের আশ্রয়স্থল সেখানের ষাঁড় রাখার স্থান হিমসের বড় এলাকার চেয়েও উত্তম।
কেউ যদি দাজ্জাল থেকে মুক্তির আশা করে সে যেন আবু ফাতরাছ নামক ঝর্নার পার্শ্বে গিয়ে আশ্রয় গ্রহন করে। যদি তুমি খুলাফাদের সমান মর্যাদা লাভ করতে চাও তাহলে দিমাশকে অবস্থান কর। আর যদি জিহাদ এবং কষ্ট শিকার করতে চাও তাহলে হিমস নামক এলাকাতে অবস্থান করতে থাক। বর্ননাকারী সাফওয়ান বলেন, আমাদেরকে আবুজ জাহিরিয়্যাহ রহঃ হযরত কা’ব থেকে বর্ননা করেন, যুদ্ধবিগ্রহ কালীন মুসলমানদের আশ্রয়স্থল হচ্ছে, দিমাশক। দাজ্জাল থেকে মুক্তির স্থান থেকে আবু ফাতরাছ ঝর্না আর তূর পাহাড় হচ্ছে, ইয়াজুজ-মাজুজ থেকে আশ্রয় গ্রহনের একমাত্র জায়গা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৩ ]
_________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
জন্য Shurayh বিন ওবায়েদ সিদ জিজ্ঞাসা হিল এর হোমস 
ও দামেস্কের , বলেন 
দামাস্কাস , 
কেল্লা এর মুসলিমদের রোমান ও 
পালঙ্ক ষাঁড় যা হয় বেশী ভালো একটি বড় বাড়িতে মধ্যে হোমস 
এবং চেয়েছিলেন করার থেকে অব্যাহতি খ্রীষ্টশত্রু নদী এবং আবু Aftrs আপনি যদি চান ঘর খলিফার আপনি মধ্যে দামেস্ক , যদি 
আপনি চান প্রচেষ্টা এবং জিহাদ আপনি মধ্যে হোমস , 
বলেন সাফওয়ান আমাকে আবু বলেন Zahrieh 
থেকে গোড়ালি , বলেন 
কেল্লা এর মুসলিমদের মহাকাব্য এর 
দামাস্কাস 
এবং খ্রীষ্টশত্রু 
আবু Aftrs নদী 
এবং ইয়াজুজ ও মাজুজ 
ফেজ
হাদিস - ৭১৪
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, অন্ধকারাচ্ছন্ন রাত্রির মত তোমাদেরকে নানান ধরনের ফিৎনা গ্রাস করে নিবে। মাশরিক মাগরিবের মুসলমানদের প্রতিটি ঘরে উক্ত ফিৎনা প্রবেশ করবে। কা’ব রহঃ এর কাছে উক্ত ফিৎনা থেকে মুক্তির উপায় জিঞ্জাসা করলে জবাবে তিনি বলেন, একমাত্র তারাই মুক্তি পাবে যারা লেবানানের ছায়াতে গিয়ে আশ্রয় গ্রহণ করে। যেসব মুসলমান লেবানান এবং তার পার্শ্ববর্তী সমুদ্রের নিকটে গিয়ে অবস্থান করবে তারা উক্ত ফিৎনা থেকে নিরাপদে থাকবে। এভাবে চলতে চলতে যখন ১২২ হিজরী সন আসবে তখন আমার এবং অন্যান্য সকল ঘর ধ্বংস হয়ে যাবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
থেকে গোড়ালি বলেন মত Ozltkm কবজ একটি অন্ধকার রাতের পরিবারের মধ্যে মুসলমানদের ঘর থাকতে নেই 
পূর্ব এবং মরক্কো শুধুমাত্র প্রবেশ 
বলা হয় যা তাদের উদ্ধার করেছিলাম 
সে থেকে তাদের উদ্ধার 
আশ্রয় 
অধীনে ছায়া এর লেবানন 
তাকে মধ্যে এবং সমুদ্র সবচেয়ে নিরাপদ মানুষ 
শত্রুতা , তিনি যদি বলেন এটা ছিল একটি একশত বিশ - দুই বছর সাহস পুড়িয়ে এই 
তারপর তার বাড়িতে Vaanrguet
হাদিস - ৭১৫
জমরা ইবনে হাবীব থেকে বর্নিত, তিনি এরশাদ করেন, ধ্বংসকারী ফিৎনা থেকে মুক্তি পাবে একমাত্র হেজাজ এবং নদীর পার্শ্বে অবস্থান কারী লোকজন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
ধর্ম সম্পর্কে বেন 
হাবীব আনজী বলেন, চলচ্চিত্রের প্রলোভন থেকে মানুষ উপকূলের মানুষ এবং হিজাজের মানুষ
হাদিস - ৭১৬
আবুজ জাহিয়্যাহ রহঃ কাসীর ইবনে মুররা থেকে বর্ননা করেন, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন, নিঃসন্দেহে শাম দেশ ইসলাম এবং মুসলমানদের জন্য একটি নিরাপদ আশ্রয়স্থল। তিনি একথাটি তিনবার বলেন। আল্লাহ তা’আলা তার বান্দাদের থেকে যারা উৎকৃষ্ট মানের রয়েছেন তাদেরকে শাম দেশের দিকে নিয়ে যাবেন। বঞ্চিত লোকজনই শামদেশের সাথে দুরত্ব বজায় রাখবে আর ফিৎনা বাজরাই শাম দেশকে উপেক্ষা করবে। উক্ত দেশের প্রতি ছায়া দান এবং বৃষ্টি বর্ষনের ক্ষেত্রে পৃথিবীর সূচনা লগ্ন থেকে কিয়ামত পর্যন্ত আল্লাহ তা’আলার সুদৃষ্টি থাকবে। সেখানের বাসিন্দাদের কাছে টাকা-পয়সা না থাকলেও কখনো রুটি-পানির কষ্ট অনুভব করবেনা। এমর্মে ইবনুজ জাহিরিয়্যাহ বলেন, আল্লাহ তা’আলা তার কিতাবে ঘোষনা দিয়েছেন, শাম দেশের চল্লিশ বৎসর পূর্বে পৃথিবীর অন্যান্য জনপদ ধ্বংস হয়ে যাবে। সেখানে কোনো প্রকার বিজলি ও বিকট শব্দে বাজ পতিত হবেনা, যা অন্যান্য দেশে হরহামেশা দেখা যাবে। এক পর্যায়ে উক্ত শহরকে সেখানের বাসিন্দাদের জন্য প্রশস্থ করে দেয়া হবে, যেমন গর্ভের শিশুর জন্য মায়ের রেহেম বা বাচ্চা দানিকে প্রশস্থ করে দেয়া হয়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
বেন অনেক সাঈদ ইবনে সিনান আবু Zahrieh 
অনেক Ben জন্য একবার বললেন , রসূল এর আল্লাহ বলবেন শান্তি বর্ষিত হোক 
আল্লাহর মই ওয়া সাল্লাম তাদের নিজস্ব [হাউস] ইসলামের Baham না এবং তিন ঈশ্বর বাজারে প্রতিধ্বনিত 
ক্রীতদাসদের গণ্যমান্য শেষদিকে ইচ্ছুক না এবং ইচ্ছুক দ্বারা দূরে নিয়ে যাওয়া এটা , ব্যতীত 
দ্বারা চক্রান্ত চোখ এর থেকে ঈশ্বরের কাছে অনন্তকাল প্রথম দিন অনন্তকাল আলোছায়া শেষ দিন 
এবং বৃষ্টি কিন্তু অসহায় মানুষ টাকা না Aadzhm রুটি ও জল 
আবু Zahrieh বলেন 
বই এর 
গড অলমাইটি ধ্বংস করতে পৃথিবী সামনে 
শাম চল্লিশ বছর সেখানে বজ্রধ্বনি ও অন্যান্যদের বাজ এবং এমনকি Tstusa হয় জন্য যারা crams 
যেহেতু গর্ভাশয়ে শিশুর বৃদ্ধি হয়
হাদিস - ৭১৭
কা’ব রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, আল্লাহ তা’আলার কাছে সবচেয়ে পছন্দনীয় স্থান হচ্ছে নারলিছ পাহাড়। কিয়ামতের পূর্বে মানুষের কাছে এমন এক যুগ আসবে যখন তারা সকলের বিভিন্ন ধরনের ফিৎনা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য উক্ত পাহাড়কে স্পর্শ করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৭ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবু মরিয়াম হাবীব ইবনে উবায়দ 
থেকে ক্বাব থেকে বলেন: "আমি জালুদেরকে ঈশ্বরের কাছে ভালবাসি, নাবলুসের পাহাড়ে, 
মানুষকে এমন একটি সময়ে নিয়ে আসার জন্য যে তারা তাদের মধ্যে রোপণ করবে।"
হাদিস - ৭১৮
সাহাবী হযরত মেকদাদ ইবনে মাদি কারাব রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশদ করেছেন, কিয়ামতের পূর্বে মানুষের মাঝে এমন এক যুগ আসবে, যখন দিনার-দেরহাম এবং টাকা-পয়সাই একমাত্র মানুষের উপকার করতে পৌঁছাতে পারবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৮ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ - 718
এটি 
আল-মকাদেম ইবনে মুয়াযদি আল-কুরআন থেকে বর্ণিত হয়েছে, তিনি বলেন: আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) তাঁর কাছে এসেছিলেন, 
এমন সময় লোকেরা দীন এবং দিরহাম
হাদিস - ৭১৯
সাঃ এর জনৈক সাহাবী থেকে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ননা করেন, তিনি এরশাদ করেন, যুদ্ধ বিগ্রহকালীন মানুষের আশ্রয়স্থলহবে দিমাশক নামক একটি শহর। গোতা নামক অন্য আরেকটি এলকায়ও লোকজন আশ্রয় গ্রহন করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭১৯ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবু বকর ইবনে আব্দুর রহমান ওয়াহিদ 
তার বাবার কাছ থেকে আমাকে বলেছিল সঙ্গী এর মুহাম্মাদ , শান্তি হতে উপরে 
থেকে তাকে নবী , শান্তি হতে তার উপর , বলেন কেল্লা এর মুসলিমদের মহাকাব্য শহর নামক 
দামেস্ক , জমি হয় বলেন করার Göta আছে
হাদিস - ৭২০
আবু হোরায়রা রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছন, ফিৎনা কালীন সবচেয়ে উত্তম মানুষ হচ্ছে, পাক পবিত্রতা অবলম্বনকারী অপরিচিত লোক। যার অবস্থা হচ্ছে, প্রকাশ পেলেও কেউ তাকে চিনতে পারেনা, আর অনুপস্থিত থাকলে তার শুন্যতা অনুভব হয়না। পক্ষান্তরে নিকৃষ্টতম মানুষ হচ্ছে, বহুরুপি বক্তা এবং সর্বজন পরিচিত লোক। উল্লিখিত ফিৎনা থেকে কেউ বাঁচতে পারবেনা, একমাত্র ঐ লোকের ব্যাপারে মুক্তির আশা করা যেতে পাতে, যিনি আল্লাহ তা’আলার দরবারে এখলাসের সাথে সমুদ্রে ডুবন্ত ব্যক্তির ফরিয়াদের ন্যায় ফরিয়াদ করতে পারবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২০ ]
___________________________________
নঈম বেন হাম্মাদ
Dirar ইবনে থেকে বেন Maimon ' আমর 
আবু Hurayrah থেকে , আল্লাহর পক্ষ থেকে তার প্রতি সন্তুষ্ট হতে পারে নবী , শান্তি হতে উপরে 
তাকে হ্যাপিয়েস্ট মানুষ বলেন 
প্রলোভন 
সব 
লুকানো বিশুদ্ধ সেই বিকালে জানেন না কিন্তু মিস সবচেয়ে দু: স্থ মানুষ মিস্ করা হয়নি মধ্যে যা প্রতি প্রচারক Msaga বা যাত্রী 
অবস্থান হয় থেকে সংরক্ষণ করা মন্দ শুধুমাত্র আন্তরিক সমুদ্রে ডুবে যাওয়ার মতো প্রার্থনা
হাদিস - ৭২১
সাহাবী হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর ইবনুল আ’স রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন, যখন ফিৎনা তীব্র আকার ধারন করবে তখন তোমরা সৎকাজকে মজবুত ভাবে আকড়িয়ে ধরবে এবং অসৎকাজ থেকে বিরত থাকবে। তোমাদের মাঝে যারা বিশেষ লোক রয়েছেন তাদের প্রতি মনোনিবেশ করবে এবং সর্বসাধারনকে এড়িয়ে চলবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আমর ইবনে আমর ইবনে হাজেমের আবু হজম থেকে হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর রা। হতে বর্ণিত, তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছ থেকে খুশি হয়েছেন 
যে, যদি তারা তোমাদেরকে যা বলে, তা তারা গ্রহণ করে এবং তোমাদের নামকে অস্বীকার করে এবং 
সাধারণের হুকুম আহ্বান করে।
হাদিস - ৭২২
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাছ রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, একবার তিনি দ্রুত গতিতে চলছিলেন অন্ধ হয়ে যাওয়ার পর। যার ফলে বিভিন্ন এলাকা অতিক্রম করছিলেন, অতঃপর তিনি বললেন ‘ইরাম’ কোথায় অবস্থিত?
আমি বললাম, ইরাম হচ্ছে, মাগরিবের দিকে বার মাইলের দুরত্বে। তিনি বললেন, সিরাহ এবং আমার মাঝে কতটুকু দুরত্ব। উত্তরে আমি বললাম উভয়ের মাঝে এতটুকু দুরত্ব রয়েছে। তিনি জানতে চাইলেন সূর এবং করীনের সাথে আমার জানাশুনা রয়েছে কিনা? আমি জবাবে বললাম, হ্যাঁ উভয় এলাকা সম্বন্ধে জানাশুনা রয়েছে। অতঃপর তিনি বললেন, সেদিকে যাওয়ার কি কোনো সুযোগ রয়েছে? আমি ‘না’ করলে তিনি কারণ জানতে চইলেন জবাবে আমি বললাম, উভয়টা এমন এক ব্যক্তির হাতে ন্যস্ত যার নিজের শহরে কোনো ধরনের মুল্যায়ন নেই। উভয়টা আক্রান্ত হয়েছে তার এক ঘনিষ্ট আত্নীয়ের মাধ্যমে এবং সেগুলো মূলতঃ তাদের সামনে বিদ্যমান। যার কারনে তাদের জন্য কোনো অবস্থান তৈরি করতে সক্ষম হয়নি। তিনি জিজ্ঞেস করলেন, সে কে? আমি জবাব দিলাম, সে হচ্ছে, রুহ ইবনে যি’না। একথা শুনে তিনি কিছুক্ষন চুপ করে থাকলেন। এ অবস্থা দেখে আমি বললাম, আপনার জিজ্ঞাসার ফলে আমি জবাব দিলাম, জানার বিষয় হচ্ছে, সেগুলো কি হতে পারে। তিনি বললেন, যেন আমি আখেরী যামানার কাছাকাছি নক্ষত্রের ন্যায়। নিঃসন্দেহে সেদিন মুসলমানদের জন্য সর্বোত্তম স্থান এবং ভদ্রস্থান হচ্ছে, সূর এবং করীন।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবু আমর জুহাইর Alobla 
ইবনে আব্বাস থেকে , আল্লাহ্ তার উপর সন্তুষ্ট যে, তিনি তাদের পাস হতে পারে । তিনি খানি পরে 
তার দৃষ্টিশক্তি আহত Vtady তারপর তিনি বলেন , যেখানে ওর্ম আমি বললাম নিজের বারো মাইল উপর মরোক্কো থিম , কত বললেন 
আমার ও শরৎচন্দ্র মধ্যে আমি তাই এবং তাই আনত বলেন , বলেন আপনারা অবগত আছেন এর বললেন ছবি এবং বিপরীত হ্যাঁ তাদের দুনিয়া 
তিনি অনুসরণ করতে না , কারণ আমি ভেবেছিলাম না , করেনি আমি স্বাক্ষরিত যখন একটি মানুষ একিউআইএম তার লোকদের ছিল না 
বাড়িতে Vosabhma আগের চেয়ে তার সম্পর্কে আমার পিঠ মধ্যে দুই তাঁর লোকেদের তাদের চয়ন করা হবে না একটি ঘর , তিনি এটা বলেন 
বলা হয় আত্মা এর বেন Zanaa বলেন , উপবাস আমি বললাম Vsoltinay ঈশ্বর Vokhbertk overfill আশীর্বাদ যে বলেন , 
আমি যদি ছিল মধ্যে Alvesatit তাকান সম্পর্কে গত এক দশকে বড় এ Orem মত একটি পিপীলিকা এবং যে শ্রেষ্ঠ ঘর এর 
মুসলমানদের যে প্রতিদিন ওয়া তিনি ছবি এবং দুই শিং সঙ্গে তাদের সঙ্গে সঙ্গে
হাদিস - ৭২৪
হযরত আব্দুল্লাহ রহঃ থেকে বর্নিত তিনি বলেন, এমন এক সময় আসবে যখন মানুষের কাছে উত্তম সম্পদ হবে তার ঘোড়া এবং অস্ত্র। যার উভয়টা সর্বদা ছায়ার মত তার সাথে থাকবে। সে যেদিকে যাবে উভয়টাও সেদিকে যাবে। সে স্থীর থাকলে ঘোড়া ও অস্ত্রও স্থীর থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবদুরহা থেকে আবু জারার কাছ থেকে সালামাহ বিন কাহিলের বিন মুগল 
বলেন যে, সবচেয়ে ভাল মানুষের টাকা সেই দিন 
তার ঘোড়া এবং তার অস্ত্র তাদের সাথে যায় যেখানে তারা এখনও
হাদিস - ৭২৫
প্রসিদ্ধ সাহাবী হযরত উকবা ইবনে আমের রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ননা করেন, রাসুলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন, নিঃসন্দেহে আমি আমার উম্মতের জন্য শরাবের চেয়ে দুধের ব্যাপারে বেশি আশংকা করছি। সাহাবায়ে কেরাম তার কারন জানতে চাইলে তিনি বললেন, তারা দুধকে এত বেশি পছন্দ করবে, যার কারনে আমার উম্মত জামা’আত থেকে অনেক দুরে সরে যাবে এবং সেটাকে নষ্ট করতে থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৫ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ - 7২5
আবু এগিয়ে থেকে সিদ বিন সাদ Altchibey 
বেন আমের বাধা এর আল্লাহর পক্ষ থেকে তার প্রতি সন্তুষ্ট হতে পারে নবী শান্তি বর্ষিত হোক 
আল্লাহর মই ওয়া সাল্লাম বলেন আমি আমার Okhov আমার দই উপর আছি উপর তাদের ওয়াইন , 
তারা বলেছিল , এবং কিভাবে [এটি] হে আল্লাহর এর আল্লাহ 
বলেন , দুধ Vibaeidon দল ও Bionha মত
হাদিস - ৭২৬
হযরত আবু সাঈদ খুদরী রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ননা করেন, তিনি এরশাদ করেন, অতিদ্রুত মুসলমানদের জন্য সর্বোত্তম সম্পদ হবে বকরি। যে বকরি চড়াতে গিয়ে লোকজন পর্বতের চুড়ায় চলে যাবে। এবং ফিৎনার স্থান থেকে নিজের দ্বীন নিয়ে পলায়নকারী হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবু সাঈদ 
আল - খুদরী , আল্লাহর পক্ষ থেকে তাঁর প্রতি সন্তুষ্ট হতে পারে নবী , শান্তি হতে তার উপর এবং হয় সম্পর্কে করা একটি ভাল মুসলিম রাজধানী ভেড়া 
ডবল দ্বারা অনুসরণ পর্বতমালার এবং অবস্থানগুলি ব্যাস বিস্কুট ধর্ম 
রাষ্ট্রদ্রোহ
হাদিস - ৭২৭
হযরত আউন ইবনে আব্দুল্লাহ রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, জনৈক লোক হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে যুবায়ের রাযিঃ এর ফিৎনা কালীন মিশরে চিন্তাগ্রস্থ অবস্থায় অঙ্গুল দিয়ে মাটি খুঁটছিল, তার এ অবস্থা দেখে এক লোক তাকে জিজ্ঞাসা করল, হে অবুদ্দুনিয়া! কেন তুমি এত বেশি চিন্তিত? জবাবে তিনি বললেন, না, বরং মানুষের অবস্থা নিয়ে চিন্তা করছি। তার কথা শুনে বলা হলো, আপনাকে তো আল্লাহ তা’আলা স্বীয় চিন্তা-ফিকির দ্বারা মুক্তি দিয়েছেন। আল্লাহর কাছে আপনি যা চেয়েছেন তা না দেয়ার মাধ্যমে। অথবা আমি তার উপর নির্ভরশীল ছিলাম, কিন্তু সেটাকে যথেষ্ট মনে করা হলোনা।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৭ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
Aoun বিন আব্দ 
আল্লাহ বলবেন , যখন একটি মানুষ মধ্যে মিশরের মধ্যে শত্রুতা জুবায়ের তামাশা স্থল তাকে যেমন একটি ব্যক্তি 
বলেন কাছে তাকে , কিছু নিজের একটি পিতা ভাষাভাষী বিশ্ব 
সে এমনকি চিন্তা সম্পর্কে যারা নেমে মানুষ 
বলল, 'ঈশ্বরকে Njak ওদের Ptvkirk যারা জিজ্ঞাসা ঈশ্বর তাকে দেয় নি 
বা বিশ্বাস 
তিনি তাকে ক্ষমা করেননি
হাদিস - ৭২৮
হযরত আব্দুল্লাহ রাযিঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, অখেরী যামানায় এমন এক যুগ আসবে যখন মানুষের কাছে সর্বোত্তম সম্পদ হচ্ছে, ভালো একটি ঘোড়া এবং ধারালো হাতিয়ার উভয় সম্পদ মানুষ যেদিকে যাবে সেদিকেই যেতে থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৮ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আবদুল্লাহর 
কাছ থেকে সেই দিনটি ভাল ঘোড়া এবং ক্রীতদাস অদৃশ্য হয়ে যাওয়ার জন্য একটি ভাল অস্ত্র যে এখনও পর্যন্ত বলা হয়
হাদিস - ৭২৯
হযরত শুরাহবীল ইবনে মুসলিম খাোলানী তার পিতা থেকে বর্ননা করেন, তিনি এরশাদ করেন বলা হয়ে থাকে তোমাদেরকে কখনো ফিৎনা গ্রাস করে নিলে, যেন অপরিচিত, অখ্যাত কোনো সুরত অবলম্বন করো।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭২৯ ]
___________________________________
নাঈম বিন হাম্মাদ
তাঁর বাবার কর্তৃত্বের ভিত্তিতে 
তিনি বলেছিলেন: "যেহেতু 
রাষ্ট্রদ্রোহের fitnah সচেতন ব্যক্তিদের 
একটি অলস মেমরি দিয়ে এটি করতে হবে।"
হাদিস - ৭৩০
হযরত ইবনে তাউস রহঃ স্বীয় পিতা থেকে বর্ননা করেন, তিনি বলেন রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেন, ফিৎনা কালীন সর্বোত্তম মানুষ হচ্ছে, ঐ ব্যক্তি যিনি ঘোড়ার লাগাম ধরে এগিয়ে যায় এবং দুশমন সম্বন্ধে ভীত সন্ত্রস্থ থাকে। অথবা গনবিচ্ছিন্ন কোনো লোক, যে, আল্লাহ তা’আলার হক্ব আদায় করে যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩০ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
তাঁর পিতা 
বলেন: রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: " 
বিদ্রোহী ব্যক্তিদের মধ্যে সবচেয়ে ভাল 
লোকটি এমন একজন লোক যিনি তার ঘোড়ার মাথাটি নিয়ে শত্রুকে ভয় 
করে ও তাকে ভয় করে,
হাদিস - ৭৩১
হযরত ইবনে খাসয়াম রহঃ বর্ননা করেন, নিশ্চই রাসূলুল্লাহ সাঃ এরশাদ করেছেন, ফিৎনাকালীন সর্বোত্তম মানুষ হচ্ছে, ঐ ব্যাক্তি যে, আল্লাহ তা’আলার রাস্তায় তার তলোয়ার দ্বারা অর্জিত সম্পদ দ্বারা ভক্ষন করে থাকেন এবং ঐ ব্যক্তি, যে পর্বতের চুড়ায় অবস্থান করতঃ তার বকরির পাল দ্বারা জীবন যাপন করে থাকে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩১ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আল্লাহর রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম 
বলেছেন: " 
প্রলুব্ধকারী 
ব্যক্তি যে ব্যক্তি আল্লাহর তরফ থেকে তরবারির তলোয়ার 
খেয়ে খায় এবং তার মেষপালকদের খিদমতে উচ্চস্থানের মাথার লোক 
হাদিস - ৭৩২
হযরত আউন ইবনে আব্দুল্লাহ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, অতিসত্তর এমন কিছু জিনিস প্রকাশ পাবে যেখানে কেউ উপস্থিত না থেকেও যদি সন্তুষ্ট থাকে, সেটা হবে যেন স্বশরীরে উপস্থিত ছিল, পক্ষান্তরে কেউ উপস্থিত থেকেও অসন্তষ্ট থাকলে সে যেন সম্পুর্ন রুপে অনুপস্থিত ছিল।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩২ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
আউইন বিন আব্দুল্লাহ এ 
কথা বলেন যে যারা মিস করেছেন তাদের সাথে খুশি হবেন এমন কেউ কেউ ছিলেন যিনি এই সাক্ষ্য দিয়েছিলেন এবং যারা এটি ঘৃণা করত তাদের তিনি 
মিস করেছেন
হাদিস - ৭৩৩
হযরত আউন ইবনে আব্দুল্লাহ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি এরশাদ করেন, নিঃসন্দেহে অনেক লোক এমন রয়েছে, যারা গুনাহের স্থলে উপস্থিত থেকে ও সেটা অপছন্দ করার কারনে যেন সেই লোক সেখানে উপস্থিত ছিল। পক্ষান্তরে কেউ উক্ত গুনাহের স্থলে অনুপস্থিত থেকে যদি সেটার উপর রাযি থাকে তাহলে যেন সে লোক উক্ত গুনাহের কাজে উপস্থিত ছিল।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩৩ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
Aoun বিন আব্দুল্লাহ 
আব্দুল্লাহ বলেন মানুষ সাক্ষী কাজ এর পাপ Vilha 
কেউ তাদের মিস মত হতে হবে এবং তাদের মিস করিবে Verdaha কেউ সাক্ষী মত হইবে
হাদিস - ৭৩৪
রবি ইবনে আমীলা রহঃ হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাযিঃ কে বলতে শুনেছেন, তিনি বলেন, যদি তুমি কাউকে অসৎ কাজ করতে দেখ আর বাঁধা দেয়া সম্ভব না হয়। তাহলে তোমার জন্য এতটুকু যথেষ্ঠ যে, আল্লাহ তা’আলাকে জানিয়ে দাও, নিশ্চই তুমি অন্তর দ্বারা এ অসৎ কাজকে ঘৃণা করে থাক।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩৪ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
শুনে তালহা Yami, ইবনে আমের ইবনে Amara, বসন্ত এজেন্ট এই সম্পর্কে আমাকে বলেছে ইবনে মাসউদ বলেন , যদি 
আমি তাকে দেখেছি মন্দ Guerra Vhspk ঈশ্বর শেখান আপনি আপনার হৃদয় অস্বীকার পারল না
হাদিস - ৭৩৫
হযরত আবু বকর ইবনে আইয়াশ রহঃ থেকে বর্নিত, তিনি বলেন, হযরত আলী ইবনে আবি তালেব রাযিঃ কে ‘চির নিন্দ্রা’ সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জবাব দিলেন। যে লোক যাবতীয় ফিৎনা থেকে এত অধিক পরিমাণ চুপ থাকে, যার কারনে কোনো ফিৎনাই তাকে আকৃষ্ট করতে পারেনি।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩৫ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
এটা তোলে আলী ইবনে আবু তালিব বলা হল , আল্লাহ হতে পারে হতে সন্তুষ্ট সঙ্গে তাকে 
কি Alnomp 
বলেন মানুষ হয় নীরব 
শত্রুতা কিছু মনে হচ্ছে না থেকে তাকে
হাদিস - ৭৩৬
হযরত আউফ রহঃ মুসাফির নামক এক কুপার এলাকার বাসিন্দা থেকে বর্ননা করেন, তিনি আলী রাযিঃ থেকে বর্ননা করেন, ফিৎনা কালীন যুগে প্রত্যেক মুসলমানকে তার নিদ্রায় মুক্তি দিবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ৭৩৬ ]
___________________________________
নঈম বিন হাম্মাদ
থেকে auf একটি লোক মানুষ এর যাত্রী কুফা নামে আমি মনে করি তিনি বলেন ' আলী যে সময়ে বলেছেন যে প্রাণে বেঁচে যান 
বিশ্বাসী ঘুম 
প্রথম সাইন Berbers এবং মানুষ এর মধ্যে মরক্কো চিহ্ন প্রস্থান