এসো হাদিস পড়ি ?
এসো হাদিস পড়ি ?
হাদিস অনলাইন ?

বন্ধুত্ব ও ভালোবাসা বিষয়ক


 ●●● হযরত আনাস (রাঃ) বলেন, আল্লাহর রাসূল (সাঃ) বলেছেনঃ "যার মধ্যে তিনটি গুণ রয়েছে সে ঈমানের স্বাদ অনুভব করবে, (ক) তার কাছে অন্য সবার তুলনায় আল্লাহ ও রাসূল (সাঃ) প্রিয়তর হয়, (খ) কাউকে ভালোবাসলে আল্লাহর জন্যই ভালোবাসে, (গ) আগুনে ফিরে যাওয়াকে যেমন অপ্রিয় জানে, কুফরিতে ফিরে যাওয়াকে তেমন অপ্রিয় মনে করে ।" -[বুখারীঃ ১৬, মুসলিমঃ ৪৩]
●●● আবু হুরায়রা (রা) বলেন, রাসুল (সা) বলেছেন,“সাত শ্রেণীর লোককে আল্লাহ সুবাহানওয়া তা'আলা তাঁর ছায়া দিবেন, যেদিন (বিচার দিবসে) তাঁর ছায়া ব্যতীত আর কোন ছায়া থাকবে না ।(০১) ন্যায় পরায়ণ শাষক, (০২) সেই যুবক যে আল্লাহর ইবাদতে বড় হয়েছে, (০৩) সে ব্যক্তি যার অন্তর সর্বদা মসজিদের সাথে সম্পৃক্ত থাকে, সেখান থেকে বের হয়ে আসার পর তথায় ফিরে না যাওয়া পর্যন্ত, (০৪) এমন দুই ব্যক্তি যারা আল্লাহর ওয়াস্তে পরস্পরকে ভালোবাসে । আল্লাহুর ওয়াস্তে উভয়ে মিলিত হয় এবং তাঁর জন্যই পৃথক হয়ে যায়, (০৫) এমন ব্যক্তি যে নির্জনে আল্লাহকে স্মরণ করে আর তাঁর চক্ষু অশ্রু বিসর্জন দিতে থাকে, (০৬) এমন ব্যক্তি যাকে কোন সভ্রান্ত সুন্দরী নারী আহবান করে আর সে বলে আমি আল্লাহকে ভয় করি এবং (০৭) সে ব্যক্তি যে গোপনে দান করে এমনকি তাঁর বাম হাত জানতে পারে না তাঁর ডান হাত কি দান করে ।” - [বুখারীঃ ৬৬০, ১৪২৩; মুসলিমঃ ১০৩১]
●●● আবু হুরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন: "আল্লাহ্ তা'আলা কিয়ামতের দিন বলবেন, আমার মহিমা ও শ্রেষ্ঠত্বের জন্য পরস্পরকে যারা ভালোবেসেছিলো তারা কোথায় ? আজকের দিন আমি তাদেরকে আমার (আরশের) ছায়ায় আশ্রয় দিবো, যেদিন আমার (আরশের) ছায়া ছাড়া অন্য কোন ছায়া নেই ।" -[মুসলিম, রিয়াযুস স্বা-লিহীনঃ ৩৮২]
●●● মুআয (রা:) বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা:) কে বলতে শুনেছি, "আল্লাহ্ তা'আলা বলেন, আমার মর্যাদার ওয়াস্তে যারা আপোসে ভালোবাসা স্থাপন করবে, তাদের (বসার) জন্য স্থান হবে নূরের মিম্বর; যা দেখে নবী ও শহীদগণ ঈর্ষা করবেন ।" -[তিরমিযী, রিয়াযুস স্বা-লিহীনঃ ৩৮৬]
●●● রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন: "সেই সত্তার কসম যার হাতে আমার প্রাণ রয়েছে! তোমরা জান্নাতে প্রবেশ করবে না, যতক্ষণ না তোমরা মুমিন হবে । এবং তোমরা মুমিন হতে পারবে না, যে পর্যন্ত না তোমরা পরস্পরে ভালোবাসা রাখবে । আমি কি তোমাদেরকে এমন কাজ বলে দেব না, যখন তোমরা তা করবে, তখন তোমরা একে অপরকে ভালোবাসতে লাগবে? (তা হলো) তোমরা পরস্পরের মধ্যে সালাম প্রচার করো । -[মুসলিম: ২৫৬৬; আহমদ: ৭১৯০; রিয়াযুস স্বা-লিহীনঃ ৩৮৪]
●●● আবু কারীম মিকদাদ ইবনে মা'দীকারির (রা:) হতে বর্ণিত, নবী (সা:) বলেছেন: "যখন কোন মানুষ তার ভাইকে ভালোবাসে, তখন সে যেন তাকে জানিয়ে দেয় যে, সে তাকে ভালোবাসে ।" -[তিরমিযী, রিয়াযুস স্বা-লিহীনঃ ৩৮৮]
●●● আবু সাঈদ খুদরী (রা) থেকে বর্ণিত, নবী (সা) বলেন, "মুমিন ছাড়া অন্য কারো সঙ্গী হয়ো না এবং তোমার খাবার যেন পরহেজগার ব্যক্তি ছাড়া অন্য কেউ না খায় ।" - [তিরমিযীঃ ২৩৯৫; আবু দাউদঃ ৪৮৩২]
●●● ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু আরো বলেছেন,"যে আল্লাহর জন্য ভালবাসে এবং আল্লাহর জন্য ঘৃণা করে, এবং যে আল্লাহর জন্য বন্ধুত্ব নষ্ট করেঅথবা তার জন্য শত্রুতা ঘোষণা করে, সে আল্লাহর কাছ থেকে নিরাপত্তা পাবে৷ এটা ছাড়া কেউ প্রকৃত ঈমানের স্বাদ পাবে না, যদিও তার সওমও সালাত অনেক হয়৷ মানুষ দুনিয়াবী বিষয়ে সম্পর্ক গড়ে তোলে, যা তাদেরকে কোন উপকারই করতে পারবে না৷" (ইবনে রজব আল হাম্বালী,জামি আল উলূমওয়াল হাকিম, পৃঃ৩০)
●●● আবু মূসা (রা) থেকে বর্ণিত, নবী (সা) বলেছেনঃ "মানুষ (দুনিয়াতে) যাকে ভালোবাসে (কিয়ামতে) সে তারই সাথী হবে ।" - [রিয়াযুস স্বা-লিহীনঃ ৩৭২]