এসো হাদিস পড়ি ?
এসো হাদিস পড়ি ?
হাদিস অনলাইন ?

গোসল বিষয়ক

●●● আবু সা'ঈদ খুদরী (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল (সাঃ) বলেছেনঃ "পানি নির্গত (শুক্রপাত) হলেই পানির ব্যবহার অবধারিত বা ফরজ । " -[বুখারী, বুলুগুল মারামঃ ১০৮]

●●● আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত । তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল (সাঃ) বলেছেনঃ "তোমাদের কেউ যখন স্ত্রীর চার শাখার (অঙ্গের) মধ্যে বসবে (সঙ্গমে লিপ্ত হবে) তখন তার পক্ষে গোসল ফরজ হবে ।" -[বুখারী, মুসলিম, বুলুগুল মারামঃ ১০৯]

●●● উম্মু সালামাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত আবু তালহাহ এর স্ত্রী উম্মু সুলাইম বলেন, হে আল্লাহর রাসূল (সাঃ)! আল্লাহ হক কথা বলতে লজ্জাবোধ করেন না, নারীর উপরও কি গোসল ফারজ হবে যদি তার ইহতিলাম (স্বপ্নদোষ) হয়ে থাকে তিনি বলেন, হ্যাঁ, যদি সে পানি (কাপড় বা দেহে বীর্যের চিহ্ন) দেখে । -[বুখারীঃ ২৮২; মুসলিমঃ ৩১৩]

●●● আয়িশা (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আল্লাহর রসূল (সাঃ) চারটি কারণে গোসল দিতেন । জুনুবী (সঙ্গমের ফলে অপবিত্র) হলে, জুম'আর দিবসে, সিঙ্গা লাগালে ও মৃতকে গোসল দিলে -[আবু দাউদঃ ৩৪৮; ইবনু খুযাইমাহঃ ২৫৬]

●●● আবু হুরায়রা (রাঃ) কর্তৃক সুমামাহ বিন উসাল (রাঃ) এর ইসলাম গ্রহণের ঘটনায় বর্ণিত হয়েছে, "নাবী (সাঃ) তাঁকে ইসলাম আনয়নের সময় গোসল দেয়ার আদেশ করেছিলেন ।" -[মুসান্নিফ আব্দুর রাজ্জাক, বুলুগুল মারামঃ ১১৩]

●●● আবু সাঈদ খুদরী (রাঃ) থেকে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, "প্রত্যেক সাবালেগ মুসলমানের পক্ষে জুম'আর দিন গোসল করা ওয়াজিব ।" -[বুখারীঃ ৮৭৯; মুসলিমঃ ৮৪৬]

●●● সামুরাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল (সাঃ) বলেছেনঃ "যে ব্যক্তি জুম'আর দিন উযু করবে সে ভালোই করবে । আর যে ব্যক্তি গোসল দিবে সে আরও উত্তম কাজ করল ।" -[আবু দাউদঃ ৩৫৪; তিরমিযীঃ ৪৯৭]

●●● আয়িশা (রাঃ) থেকে বর্ণিত হয়েছে, তিনি বলেনঃ "আল্লাহর রাসূল (সাঃ) যখন ফরজ গোসল করতেন তখন প্রথমে দু'হাত ধুয়ে নিতেন । অতঃপর তাঁর ডান হাত দ্বারা বাম হাতে পানি ঢেলে তাঁর গুপ্তাঙ্গ ধৌত করতেন তারপর উযু করতেন তারপর গোসলের জন্য পানি নিতেন এবং হাতের আঙুলসমূহ মাথার চুলের গোড়ায় প্রবেশ করাতেন তারপর তাঁর মাথায় তিন আঁজলা পানি ঢালতেন তারপর সমস্ত শরীরে পানি বইয়ে ধুতেন, তারপর পা ধুতেন ।"-[বুখারী, মুসলিম, বুলুগুল মারামঃ ১১৯]

●●● উম্মু সালামাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত । তিনি বলেন, আমি আল্লাহর রাসূল (সাঃ) কে বললাম, হে আল্লাহর রাসূল! "আমি এমন নারী যে, মাথায় চুল শক্তভাবে বেঁধে রাখি এবং আমি জানাবতের (অন্য বর্ণনায়) হায়িজ (থেকে পবিত্র হওয়ার) গোসলের সময় চুলের বেণী কি খুলে ফেলব ? তিনি বললেন, না, বরং মাথায় তিন আজলা পানি ঢালাই তোমার জন্য যথেষ্ট হবে ।" -[মুসলিমঃ ৩৩০]