এসো হাদিস পড়ি ?
এসো হাদিস পড়ি ?
হাদিস অনলাইন ?

শিষ্টাচার বিষয়ক

  • ইবনে উমার (রা:) হতে বর্ণিত, রসূলুল্লাহ্ (সা:) এক আনসার ব্যক্তির পাশ দিয়ে অতিক্রম করলেন। যিনি তার ভাইকে লজ্জার ব্যাপারে উপদেশ দিচ্ছিলেন। রসূলুল্লাহ্ (সা:) বললেন, তাকে ছেড়ে দাও। কেননা, লজ্জা ঈমানের অঙ্গ। -[সহীহুল বুখারী ২৪, ৬১১৮; মুসলিম ৩৬]
  • ইমরান ইবনে হুসাইন (রা:) বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, লজ্জা মঙ্গলই বয়ে আনে। -[সহীহুল বুখারী: ৬১১৭, মুসলিম: ৩৫]
  • আবু সাঈদ খুদরী (রা:) বলেন, আল্লাহর রসূল (সা:) বলেছেন, কিয়ামতের দিন আল্লাহর নিকট সবচেয়ে নিকৃষ্ট মানুষ সেই ব্যক্তি হবে, যে স্ত্রী সঙ্গে মিলন করে এবং স্ত্রী তার সঙ্গে মিলন করে। অতঃপর সে তার (স্ত্রীর) গোপন কথা প্রকাশ করে দেয়। -[মুসলিম ১৪৩৭, রিয়াযুস স্বালেহীন ৬৯০]
  • আবু যার (রা:) বলেন, একদা আল্লাহর রসূল (সা) আমাকে বললেন, তুমি কোন ভাল কাজকে তুচ্ছ মনে করো না। যদিও তুমি তোমার ভাইয়ের সাথে হাসিমুখে সাক্ষাৎ করতে পার। -[মুসলিম ২৬২৬, রিয়াযুস স্বা-লিহীন ৭০০]
  • আবু হুরায়রা (রা) থেকে বর্ণিত, নবী (সা:) বলেন, ভাল কথা বলাও সাদকাহ্। -[সহীহুল বুখারী ২৯৮৯, মুসলিম ১০০৯]
  • আয়িশা (রা:) বলেন, রসূলুল্লাহ্ (সা) এর কথা স্পষ্ট ছিল, সব শ্রোতাই তা বুঝে ফেলত। -[আবু দাউদ ৪৮৩৯, তিরমিযী ৩৬৩৯]
  • আয়িশা (রা:) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সা) কে কখনো এমন উচ্চ হাস্য হাসতে দেখিনি, যাতে তাঁর আলজিভ দেখতে পাওয়া যেত। আসলে তিনি মুচকি হাসতেন। -[সহীহুল বুখারী ৪৮২৯,৩ ৩২০৬; মুসলিম ৮৯৯]
  • আবু হুরায়রা (রা:) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি আল্লাহর রসূল (সা:) কে বলতে শুনেছি যে, যখন নামাযের জন্য ইক্বামত দেওয়া হয় তখন তোমরা তাতে দৌড়ে আসবে না, বরং তোমরা গাম্ভীর্য-সহকারে স্বাভাবিকরূপে হেঁটে আসবে। তারপর যতটা নামায (ইমামের সাথে) পাবে, পড়ে নেবে। আর যতটা ছুটে যাবে, ততটা (নিজে) পূরণ করে নেবে। -[সহীহুল বুখারী ৬৩৬, ৯০৯; মুসলিম ৬০২]
  • জাবির (রাদিয়াল্লাহু আ'নহু) হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আ'লাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, "তোমাদের মধ্যে আমার প্রিয়তম এবং কিয়ামতের দিন অবস্থানে আমার নিকটতম ব্যক্তিদের কিছু সেই লোক হবে যারা তোমাদের মধ্যে চরিত্রে শ্রেষ্ঠতম। আর তোমাদের মধ্যে আমার নিকট ঘৃণ্যতম এবং কিয়ামতের দিন অবস্থানে আমার নিকট থেকে দূরতম হবে তারা; যারা সারসার (অনর্থক অত্যধিক আবোল-তাবোল বলে যারা) ও মুতাশাদ্দিক (আলস্য ভরে টেনে টেনে কথা বলে যারা) এবং যারা মুতাফাইহিক লোক; সাহাবায়ে কিরাম বললেন, সারসার এবং মুতাশাদ্দিক তাদেরকে তো চিনলাম; কিন্তু মুতাফাইহিক কারা? রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আ'লাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেন, অহংকারীরা।" -[তিরমিযী ২০১৮, সিলসিলাহ সহীহাহ ৭৯১, সহীহুল জামি ২২০১]
  • আবু হুরায়রা (রা) হতে বর্ণিত, নবী (সা) বলেছেন, যে ব্যক্তি আল্লাহ্ ও শেষ দিনের প্রতি ঈমান রাখে, সে যেন অবশ্যই মেহমানের সম্মান করে। যে ব্যক্তি আল্লাহ্ ও শেষ দিনের প্রতি ঈমান রাখে, সে যেন অবশ্যই তার আত্মীয়তার বন্ধন অটুট রাখে। যে ব্যক্তি আল্লাহ্ ও শেষ দিনের প্রতি ঈমান রাখে, সে যেন ভাল কথা বলে; নচেৎ চুপ থাকে। -[সহীহুল বুখারী ৬০১৮, মুসলিম ৪৭, রিয়াযুস স্বা-লিহীন ৭১১]
  • আয়িশা (রা) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ্ (সা) সমস্ত কাজে (যেমন) ওযু করা, মাথা আঁচড়ানো ও জুতা পরা (প্রভৃতি সমস্ত ভালো) কাজে ডান দিক থেকে শুরু করা পছন্দ করতেন। -[সহীহুল বুখারী ১৬৮, মুসলিম ২৬৮, রিয়াযুস স্বা-লিহীন ৭২৫]